তৃণমূল থেকে পদত্যাগ করে বিজেপিতে যোগদান করলেন দুই হেভিওয়েট নেতা ও তাদের অনুগামীরা।

বর্তমান দিনে অন্য পার্টি ছেড়ে বিজেপি তে যোগ দেওয়াটা নৃত্য নৈমিত্তিক ঘটনা হয়ে দাড়িয়েছে। খবর নিলে প্রায়ই দেখা যাচ্ছে প্রতিদিন দেশের কোনো না কোনো এলাকাতে কেউ না কেউ বিজেপিতে যোগ যোগদান করছেন। তার একমাত্র কারন হল দেশের জনগনের জন্য বিজেপি নিষ্ঠা ভাবে কাজ করে চলেছে তাই মানুষের ভরসা দিন দিন বেড়েই চলেছে বিজেপির উপর। তাই দেশের সব জায়গা থেকে বিজেপির দিকে মানুষ ঝুঁকে পড়ছেন। পিছিয়ে নেই এ রাজ্যও। বিজেপিতে যোগ দেওয়ার ক্ষেত্রে আমাদের রাজ্য এখন ধীরে ধীরে সবাইকে পিছনে ফেলছে।

অবশেষে বর্ধমান জেলা পরিষদের অন্তভুক্ত রুবী ধীবর এবং গোলাম জার্জিস নামে দুই ক্ষমতাশালী তৃনমূল নেতা আনুষ্ঠানিকভাবে বিজেপিতে যোগদান করলেন। অশোক মালাকার যিনি আউশগ্রাম-২ এর তপশীলি জাতি, উপজাতি ও অনগ্রসর সেলের কার্যকরী সভাপতি তিনিও তাদের সাথে এই দিন তৃনমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করলেন। এছাড়াও তাদের সাথে বিজেপিতে যোগদান করছেন শিবনাথ সিং নামে তৃণমূল শ্রমিক সংগঠনের এক সাধারণ সম্পাদক।

তাদের হাতে বিজেপির দলীয় পতাকা তুলে দেওয়া হয় শনিবার। সেই অনুষ্ঠানে তারা বিজেপির সদর দফতরে কৈলাশ বিজয়বর্গী হাত থেকে দলীয় পতাকা নেন। তাদের কে বিজেপিতে সাদর আমন্ত্রণ জানানোর জন্য কৈলাশ বিজয়বর্গীর পাশাপাশি সেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, রাহুল সিনহা, মুকুল রায় প্রমুখরাও। গোলাম জার্জিস তার রাজনৈতিক জীবন শুরু করেন কংগ্রেসের ছাত্র পরিষদ থেকে। সেই সময় তিনি কংগ্রেসের হয়ে রাজনীতিতে ভালো দাপট দেখিয়েছেন।

সেই সাথে তিনি একজন দায়িত্ব পরায়ণ রাজনৈতিক ব্যাক্তিত্ব হিসাবে কংগ্রেসের একাধিক পদেও ছিলেন। তাকে বহুবার বাম রাজনীতির হাতে আক্রান্তও হতে হয়েছে। যখন কংগ্রেস নেতা কাশীনাথ কে খুন করা হয়েছিল তখন তিনি অল্পের জন্য প্রানে বেচেঁছিলেন। তারপর তিনি বেশ কিছু দিন আত্মগোপন করে ছিলেন। এরপর বর্ধমান জেলায় কংগ্রেস কে পতন করে তৃনমূলের উত্থানে যে চারজন তৃনমূল নেতা মূল ভূমিকা নিয়েছিল তাদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন এই গোলাম জার্জিস।
#অগ্নিপুত্র

Related Post

Open

Close