NRC ইস্যুতে মুলায়মের ছোট পুত্রবধূ এমন কিছু বললেন যাতে মমতা ও তার সহযোগীদের হুশ উড়ে যাবে।

২০১৯ এ লোকসভার জন্য প্রস্তুতি জোরকদমে শুরু হয়ে গিয়েছে। সমস্ত রাজনৈতিক দল নির্বাচনের লড়াইয়ে কোমর বেঁধে মাঠে নেমে পড়েছে। দেশের বেশিরভাগ রাজ্যে হারের সম্মুখীন হওয়ার পর রাহুল গান্ধী দেশের বিরোধী দলগুলির সাথে এক হয়ে নির্বাচন লড়ার সিধান্ত নিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে অসমে NRC এর প্রাথমিক রিপোর্টের পর ৪০ লক্ষ অবৈধ অনুপ্রবেশকারীর নাম উঠে এসেছে। যদিও তাদের মধ্যে কিছু ভারতীয় রয়েছে যাদের নাম পরবর্তীকালে প্রমাণের পর বৈধ তালিকায় প্রকাশ করা হবে। আসামের NRC নিয়ে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী কেন্দ্র সরকারের বিরুদ্ধে ক্ষোপ প্রকাশ করতে শুরু করেছিলেন।

NRC নিয়ে অভিযোগ অনাভিযোগ চরমে ছিল সেই মুহূর্তে অমিত শাহ এবং দিলীপ ঘোষ জানিয়েছিলেন যে পশ্চিমবঙ্গে ক্ষমতায় এলে সেখানেও NRC করা হবে। যার পর মমতা ব্যানার্জী রক্তগঙ্গা ও গৃহযুদ্ধের মতো বিতর্কিত বক্তব্য দেন। এইরকম বক্তব্যের জন্য মমতা ব্যানার্জীকে বহু প্রতিক্রিয়ার সম্মুখীন হতে হয়। অনেকের দাবি পশ্চিমবঙ্গে বহু সংখ্যায় রোহিঙ্গা ও অবৈধ বাংলাদেশি রয়েছে যারা মমতা ব্যানার্জীর ভোট ব্যাঙ্ক হিসেবে কাজ করে আর সেই জন্যেই মমতা বিতর্কিত বক্তব্য দিয়েছেন।

এখন এই ইস্যুতে উত্তরপ্রদেশের পূর্বমুখ্যমন্ত্রী থাকা মুলায়ম সিং যাদবের পুত্রবধূ অপর্ণা যাদব যা বলেছেন তা শোনার পর অখিলেশ যাদবও অবাক হবেন। মুলায়ম সিং যাদবের পুত্রবধূ বলেন, ‘দেশের আইনি ভাবে থাকা শরনার্থীদের নিয়ে কারোর কোনো সমস্যা নেই, সমস্যা সেটা যখন কেউ নিয়ম শৃঙ্খলার বিপরীতে গিয়ে দেশে ঢুকে পড়ে।’

অপর্ণা যাদব বলেন, মমতাজির এই সমস্ত অবৈধ অনুপ্রবেশকারীদের সমৰ্থন করা উচিত নয় যারা বেআইনিভাবে দেশে বসবাস করছে। অপর্ণা যাদব এই বিষয়ে আরো বলতে গিয়ে বলেন যে মমতাজির এই বিষয়ে আরো ভালোভাবে বিচার করা উচিত, কারণ এটা রাষ্ট্রীয় সুরক্ষার একটা বিষয়। অর্থাৎ একটা বিষয় স্পষ্ট যে বিজেপি বিরোধিতার সময় মমতা ব্যানার্জী বহু দলের সমর্থন পেলেও NRC ইস্যুতে কোনো দল মমতা ব্যানার্জীকে সাথ দিচ্ছে না।

Related Post

Open

Close