বাংলাদেশিদের পশ্চিমবঙ্গে চুপিসারে আনার গুরুতর অভিযোগ আনলেন বিমল গুরুং।

লোকসভা ভোট প্রায় এসেই গেল, তাই নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সব দল তাদের নিজের নিজের ঘাঁটি গোছাতে ব্যাস্ত হয়ে পড়েছে এখন। এই সব কিছুর উরধে গিয়ে এখন জাতীয় রাজনীতি সরগরম হয়ে রয়েছে অসম এ NRC ইস্যু কে কেন্দ্র করে। সেখানে সম্প্রতি ৪০ লক্ষ বাংলাদেশি অবৈধ অনুপ্রবেশকারীদের নাম প্রাথমিকভাবে প্রকাশ করা হয়েছে কেন্দ্র সরকারের তরফে। এবার গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা নেতা বিমল গুরুং সেই ইস্যু কে তুলে ধরে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুললেন যে, কেন্দ্র সরকার যে সমস্ত ৪০ লক্ষ  অনুপ্রবেশকারীদের নাম ঘোষনা করেছেন তাদের সবাইকে শুধু মাত্র ২০১৯ লোকসভা ভোটের কথা মাথায় রেখে আমাদের রাজ্য সরকার তাদেরকে চুপিসারে রাজ্যের মধ্যে ঢুকিয়ে দিচ্ছেন, শুধু মাত্র ভোট ব্যাংক বাড়ানোর জন্য।

কিছুদিন আগে অমিত শাহ জানিয়েছিলেন যে পশ্চিমবঙ্গেও NRC করা হবে যারপর মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী গৃহযুদ্ধ ও রক্ত গঙ্গার মতো শব্দ ব্যবহার করেছিলেন। এখন গুরুং মমতার সরকারের বিরুদ্ধে অবৈধ বাংলাদেশি ঢোকানোর অভিযোগ আনার পর মমতা ব্যানার্জী কি মন্তব্য করে সেটাই দেখার। তিনি আরও বলেন যে, যেসমস্ত মানুষের নাম নাগরিক পুঞ্চের তালিকায় নেই তাদের কে আরও ভালো করে যাচাই করে তবেই দেশ থেকে তাড়ানো উচিৎ কেন্দ্র সরকারের।

যারা সত্যি আমাদের দেশের নাগরিক তাদেরকে কখনওই তাড়ানো উচিৎ নয়। সেই সাথে তিনি আরও বলেন যে এই রাজ্যে নিজেদের আত্মপরিচয় প্রতিস্থাপনের লক্ষ্যেই গোর্খারা এতদিন ধরে লড়ে এসেছেন তাই যদি রাজ্যের তৃনমূল সরকার ভেবে থাকে যে তারা এই ভাবে অনুপ্রবেশকারী ঢুকিয়ে আমাদের আন্দলনকে লাঘু করবেন সেটা ভুল ভাবছে।

দার্জিলিং ও পাহাড়ের পাদদেশের এলাকাজুড়ে বাংলাদেশিদের বসানো নিয়ে তিনি বলেন যে, রাজ্য সরকার সব কিছু জানার সত্ত্বেও এই ভাবে বাংলাদেশিদের রাজ্যে প্রবেশ করাচ্ছেন।  তারা শুধু নিজেদের ভোট ব্যাংক দেখছেন দেশের কথা একটুও ভাবছেন না। এর ফলে দেশের যে কতটা পরিমানে ক্ষতি হচ্ছে সেই দিকে তাদের নজর নেই।
#অগ্নিপুত্র

Related Post

Open

Close