Press "Enter" to skip to content

অজিত দোভালকে ট্যুইটারে ফলো করে থাকলে হয়ে যান সাবধান, জারি হল হাই অ্যালার্ট

নয়া দিল্লিঃ অজিত দোভাল (Ajit Doval) নিজের কাজের জন্য গোটা ভারতে (India) বেশ জনপ্রিয়। যদিও, তিনি লাইমলাইটে আসতে চান না কখনও। খুব দরকার না হলে অজিত দোভাল কখনও কোনও কিছু নিয়ে বয়নাবাজি করেন না। ওনাকে মানুষ শুধু ওনার কাজের জন্যই জানেন। আর এই কারণে ওনার জনপ্রিয়তাও অনেক বেশি। সেই জনপ্রিয়তার কারণে ট্যুইটারে ওনার নামের অ্যাকাউন্ট চোখে পড়লেই সবাই ওনাকে ফলো করা শুরু করে দেন।

উত্তরাখণ্ডে জন্মগ্রহণ করা অজিত দোভাল একজন IPS অফিসার হিসেবে নিজের কর্মজীবনের শুরু করেছিলেন। গোয়েন্দাগিরি তে ওনার অনেক অভিজ্ঞতা রয়েছে। প্রায় সাত বছর আন্ডারকভার ছিলেন দোভাল। ৯০-র দশকের শুরুতে দোভালকে কাশ্মীরে পাঠানো হয়েছিল। ওনাকে জঙ্গিদের বোঝানোর দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল। আর তিনি সেই কাজে সফলতাও পেয়েছিলেন।

উনি সফল হওয়ার কারণেই ১৯৯৬ সালে জম্মু কাশ্মীরে করানো গিয়েছিল। দোভাল ১৯৯১ সালে খালিস্তান লিবারেশন ফ্রন্ট রোমানিয়ার রাজদূতকে কি্যাপ করেছিল। আর সেই রাজদূতকে বাঁচানোর পরিকল্পনা এই অজিত দোভালই করেছিলেন। প্রায় এক দশক উনি গোয়েন্দা বিভাগের অপারেশন শাখার প্রধান ছিলেন।

এখন কথা হচ্ছে, আপনি যদি অজিত দোভালকে (Ajit Doval) ট্যুইটারে ফলো করে থাকেন, তাহলে সাবধান হয়ে যান। এই বিষয়ে বিদেশ মন্ত্রক কড়া সতর্কবার্তা জারি করেছে। বিদেশ মন্ত্রালয় পরিস্কার জানিয়েছে যে, NSA অজিত দোভালের কোনও ট্যুইটার অ্যাকাউন্টই নেই। এর মানে এই যে, NSA-র নামে সোশ্যাল মিডিয়ায় যেসব অ্যাকাউন্ট রয়েছে, সেগুলো সব ভুয়ো। তাই এসব ভুয়ো অ্যাকাউন্টগুলোকে ফলো করার থেকে বিরত থাকুন।

বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচি (Arindam Bagchi) জানিয়েছেন, NSA অজিত দোভাল ট্যুইটারে নেই। ওনার কোনও অফিসিয়াল অ্যাকাউন্টই নেই। যেগুলো সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘুরে বেড়াচ্ছে, সেসব ভুয়ো। আর এই কারণেই ওনার নামের ভুয়ো অ্যাকাউন্ট থেকে দূরে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন অরিন্দম বাগচি। বলে দিই, ট্যুইটারে অজিত দোভালের নামে বহু অ্যাকাউন্ট রয়েছে, এমনকি সেগুলোর ফলোয়ার্স সংখ্যাও অনেক। আর সেখান থেকে মাঝে মধ্যেই উত্তেজক ট্যুইট করা হয়।