Press "Enter" to skip to content

অটল টানেলে সোনিয়া গান্ধীর শিলন্যাস করা ফলক নেই কেন? থানায় ছুটল কংগ্রেস

হিমাচলঃ () রোহতাংয়ের শিলন্যাসের ফলক উধাও হওয়া নিয়ে রাজনীতির পারদ চড়ছে। লাহৌল-স্পিতি জেলার কংগ্রেস সভাপতি ঝালছন ঠাকুর ২৮ জুন ২০১০ এ ইউপিএ সভাপতি সোনিয়া গান্ধীর (Sonia Gandhi) তরফ থেকে রোহতাং টানেলের নামে শিলন্যাস করা ফলক উধাও হওয়ার কারণে কি-লং থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে। জানিয়ে দিই, এর আগে বিরোধী নেতা মুকেশ অগ্নিহোত্রী এই মামলায় সরব হয়েছিলেন।

ঝালছন ঠাকুর বলেন, ৩ অক্টোবর সামরিক দিক থেকে গুরুত্বপূর্ণ অটল টানেল রোহতাং আম জনতার জন্য খুলেছে। ২৮ জুন ২০১০ এ তৎকালীন ইউপিএ সভাপতি এই টানেলের শিলন্যাস করেছিলেন। কিন্তু সোনিয়া গান্ধী দ্বারা শিলন্যাস করার ফলক এখন আর খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

শিলন্যাস ফলক গায়েব করাদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার দাবি তুলছেন তিনি। শিলন্যাস ফলককে উধাও করা ির চক্রান্ত বলে জানিয়েছন তিনি। উনি এও বলেছেন যে, এই কাজ কংগ্রেস সহ্য করবে না। শিলন্যাস ফলক গায়েব করা বিজেপির ছোট মানসিকতা উজাগর করে বলে জানান তিনি।

লাহৌল-স্পিতির কংগ্রেস সভাপতি শশি কিরণ বলেন, সোনিয়া গান্ধীর ফলক উধাও হয়ে যাওয়া নিন্দনীয়। মানালি ব্লক কংগ্রেসের সভাপতি হরিচন্দ্র শর্মা বলেন, উদ্বোধনের দিন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র ি নিজের ভাষণে শুধু একটি দল পর্যন্তই সীমিত ছিলেন, কিন্তু তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের সময় বাজেট বরাদ্দ করে তৎকালীন ইউপিএ সভাপতি সোনিয়া গান্ধী এই সুড়ঙ্গের শিলন্যাস করেছিলেন। এবার বিজেপি সেই শিলন্যাস ফলক গায়েব করে দিয়েছে। তিনি হুমকি দিয়ে বলেন, ১৫ দিনের মধ্যে শিলন্যাস ফলক জায়গা মতো না বসলে, কংগ্রেস রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ দেখাবে।