Press "Enter" to skip to content

অপরাধ দমনে কড়া যোগী সরকার, চার বছরে ৮,৫০০ এনকাউন্টার করে সেরা উত্তর প্রদেশ

লখনউঃ উত্তর প্রদেশের ী আদিত্যনাথ সরকার দীর্ঘদিন ধরে রাজ্যে দুষ্কৃতীদের দৌরাত্ম কম করার দাবি করে আসছে। স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ অপরাধীদের হুমকি দিয়ে উত্তর প্রদেশ ছেড়ে যাওয়ার পরামর্শও দিয়েছে। আর এরই মধ্যে যোগীর ের তরফ থেকে অপরাধ কম হওয়ার যেই পরিসংখ্যান জারি করা হয়েছে, তা সবাইকে অবাক করে দিচ্ছে।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালে যখন থেকে ি উত্তর প্রদেশের ক্ষমতায় এসেছে, তখন এখনও পর্যন্ত ইউপি পুলিশ ৮ হাজার ৪৭২টি এনকাউন্টারে ৩ হাজার ৩০২ জন অপরাধীকে গুলি করে আহত করেছে। পুলিশের এই এনকাউন্টারে ১৪৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর বহু অপরাধীর পায়ে গুলি লেগে আহত হয়েছে।

যোগী সরকার আধিকারিক ভাবে এই অপাের কোনও নাম দেয়নি। কিন্তু রাজ্যের কিছু পুলিশকর্মী এটিকে ‘অপারেশন ল্যাংড়া” বলে আখ্যা দিয়েছে। যদিও, পুলিশ আধিকারিকরা এটা স্বীকার করেনি যে তাঁরা এই অপারেশনের মাধ্যমে অপরাধীদের ল্যাংড়া করার পরিকল্পনা নিয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে যে, তাঁদের কাছে এমন কোনও খবর নেই যেখানে অপরাধীদের পায়ে গুলি লাগার পর তাঁরা ল্যাংড়া হয়ে গিয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে যে, এই এনকাউন্টারে এখনও পর্যন্ত ১৩ জন পুলিশকর্মীর মৃত্যু হয়েছে আর ১ হাজার ১৫৭ জন আহত হয়েছে। আর এই এনকাউন্টারে ১৮ হাজার ২২৫ জন অপরাধী হয়েছে।

উল্লেখ্য, উত্তরপ্রদেশ একসময় অপরাধী স্বর্গরাজ্য বলে খ্যাত ছিল। কিন্তু এখন পরিস্থিতি অনেকটাই স্বাভাবিক। তবে অপরাধ যে একদম কমে গিয়েছে, সেটাও বলা যাবে না। উত্তর প্রদেশে এখনও বড়বড় অপরাধ হয়ে চলছে। অন্যদিকে পুলিশের তরফ থেকেই অপরাধীদের এনকাউন্টারও করা হচ্ছে।

মাঝেসাঝেই উত্তর প্রদেশ থেকে এমনও খবর আসে যে, সেখানকার কুখ্যাত দুষ্কৃতীরা পুলিশের এনকাউন্টারের ভয়ে খোদ থানায় গিয়ে আত্মসমর্পণ করেছে। এমনকি তাঁরা জীবনে আর কোনদিনও অপরাধ না করার প্রতিজ্ঞাও নিয়েছে। কিন্তু এখনও রাজ্যে অপরাধ হয়ে চলেছে, আর পুলিশ তাঁদের অভিযানও চালিয়ে যাচ্ছে।