Press "Enter" to skip to content

অবসর নেওয়ার পরেও আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেবে মোদী সরকার


নয়া দিল্লীঃ দিল্লীতে বদলি হয়ে যাবেন না বলে আচমকাই নিজের পদ থেকে দিয়ে দেন রাজ্যের মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় (Alapan Banerjee) । ওনার ইস্তফার পর নাটকীয় ভাবে ওনাকে নিজের মুখ্য উপদেষ্টা পদে নিযুক্ত করেন (Mamata Banerjee)। আলাপনের ইস্তফার পর তাঁর বদলি নিয়ে কেন্দ্র-রাজ্য সংঘাত কমলেও, কেন্দ্রের তোপ থেকে কি রক্ষা পাবেন তিনি?

আইনশৃঙ্খলা ভঙ্গের অভি করে সকালেই কেন্দ্রের তরফ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল যে, আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কিন্তু বর্তমানে রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় আর কেন্দ্রের অধীনে নেই, তাহলে এখন কি করবে কেন্দ্র? নয়াদিল্লী সূত্রের খবর অনুযায়ী, আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় স্বেচ্ছায় অবসর নিলেও তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে কেন্দ্র  

   

সোমবার সকালে দিল্লীর নর্থ ব্লকে কর্মিবর্গের মন্ত্রকে রিপোর্ট করার কথা ছিল আলাপনের। কিন্তু তিনি সেখানে না গিয়ে নবান্নে যান। এরপর রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কেন্দ্রকে চিঠি পাঠিয়ে জানিয়ে দেন যে, আলাপনকে ছাড়া হচ্ছে না। মুখ্যমন্ত্রী আলাপনের বদলি প্রত্যাহার করার জন্যও আবেদন করেন কেন্দ্রের কাছে। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রীর আর্জি গ্রহণ করেনি কেন্দ্র।

রুল বুক অনুযায়ী, রাজ্যের মুখ্যসচিবের বদলি কেন্দ্র আর রাজ্যের সম্মতিতে হয়। কিন্তু রাজ্য যদি নারাজ থাকে, তাহলে কেন্দ্রের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত বলে মানা হয়। কারণ মুখ্যসচিব যেই দফতরের অধীনে কর্মরত থাকেন, সেটা প্রধানমন্ত্রী কার্যালয় থেকে পরিচালনা হয়। সেই কারণে মুখ্যসচিবের বদলি নিয়ে কেন্দ্রের মতই চূড়ান্ত থাকে। আর এটা দীর্ঘদিন ধরেই চলে আসছে।

কেন্দ্রের সুত্র অনুযায়ী, আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় অবসর নিয়েছেন ঠিকই, কিন্তু এটা কোনও লাভ হবে না। ওনার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ হবে।