Press "Enter" to skip to content

অ্যারেস্ট মেমোই সই করিয়ে গ্রেফতার চার, আজই চার্জশিট দেবে CBI



বাংলাহান্ট ডেস্কঃনারদা মামলায় আজই গ্রেফতার রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, শোভন চট্টোপাধ্যায়, সুব্রত মুখার্জী এবং । CBI সূত্রের অনুযায়ী, নিজাম প্যালেসে তাঁদের দিয়ে অ্যারেস্ট মেমোয় সই করানো হয়েছে। আজই চার্জশিট পেশ করবে সিবিআই। আজ সকাল পৌনে ৯টা নাগাদ ফিরহাদ হাকিমকে চেতলার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে কেন্দ্রীয় সংস্থা। পাশাপাশি মদন মিত্র এবং শোভন চট্টোপাধ্যায়কেও জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য ডেকে নিয়ে যাওয়া হয়।

https://platform.twitter.com/widgets.js

ফিরহাদ হাকিম সাংবাদিকদের সামনে বলেন, ‘স্পিকারের থেকে অনুমতি না নিয়েই আমাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ে দেখে নেব।” আরেকদিকে, সোমবার সকাল সকাল ফিরহাদ হামিককে গ্রেফতার করার ঘটনাকে কেন্দ্র করে ধুন্ধমার পরিস্থিতি সৃষ্টি হয় চেতলায়। তৃণমূল কর্মী তথা ফিরহাদ হাকিমের অনুগামীরা সিবিআই-র বিরুদ্ধে বিক্ষভে সামিল হয়ে স্লোগান দেওয়া শুরু করে। আজ সকাল পৌনে ৯টা নাগাদ রাজ্যের নতুন পরিবহণ মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের বাড়িতে হানা দেন CBI অফিসাররা। নারদা মামলায় জড়িত থাকার অভিযোগে ওনাকে সেখান থেকে গ্রেফতার করা হয়।

সিবিআই-র আধিকারিকরা ফিরহাদ হাকিমকে নিয়ে বের হতেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন ওনার অনুগামীরা। সিবিআইকে বাধা দেওয়ারও চেষ্টা করেন তাঁরা। এমনকি সিবিআই-র গাড়ির সামনে শুয়ে পড়ে তৃণমূলের কর্মীরা। সিবিআই-র বিরুদ্ধে ওঠে স্লোগান। এরপর ফিরহাদ হাকিম স্বয়ং মোর্চা সামলান। তিনি নিজেই কর্মীদের শান্ত করার চেষ্টা করেন। কর্মীরা শান্ত না হলে গাড়ি থেকে নেমে তাঁদের বোঝানোর চেষ্টা চালান মন্ত্রী।

এরপর কর্মীদের বুঝিয়ে সুঝিয়ে সিবিআই-র গাড়িতে করে বেরিয়ে যান তিনি। যদিও তৃণমূল কর্মীদের ক্ষোভ মেটে না। তাঁরা চেতলা সেন্ট্রাল রোডে অবস্থান বিক্ষোভে বসে পড়ে। তৃণমূল কর্মীরা রাস্তায় শুয়ে পড়ে গ্রেফতারীর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানায়। অ্যাম্বুলেন্স এবং চিকিৎসকদের গাড়ি ছাড়া সমস্ত গাড়িই আটকে যায়।