Press "Enter" to skip to content

আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে হরিয়ানার স্কুলে পড়ানো হবে গীতা, জানিয়ে দিলেন মনোহর লাল খট্টর

চণ্ডীগড়ঃ হরিয়ানায় (Haryana) আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে স্কুলে ভগবদ গীতা (Bhagavad Gita) পড়ানো হবে। আন্তর্জাতিক গীতা মহোৎসবে অংশ নিয়ে হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রী মনোহর লাল খট্টর (Manohar Lal Khattar) এই ঘোষণা করেছেন। উনি বলেন, গীতার শ্লোক পঞ্চম এবং সপ্তম শ্রেণির পাঠ্যক্রমের অংশ হবে। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, যুবদের তাদের জীবনে গীতার সারমর্ম আত্মস্থ করা উচিত, কারণ এই পবিত্র গ্রন্থের বার্তাটি কেবল অর্জুনের জন্য নয়, আমাদের সকলের জন্য দেওয়া হয়েছে। এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লাও।

মুখ্যমন্ত্রী খট্টর বলেন, বার্ষিক আন্তর্জাতিক গীতা মহোৎসবকে বিশাল আকারে নিয়ে যেতে আগামী বছর থেকে গীতা জয়ন্তী সমিতি গঠন করা হবে। জ্যোতিসার গীতাস্থলীতে দুই একর জমিতে ২০৫ কোটি টাকা ব্যয়ে মহাভারতের থিম নিয়ে একটি জাদুঘর তৈরি করা হচ্ছে। খট্টর বলেন, রামলীলার আদলে আগামী বছর থেকে আন্তর্জাতিক গীতা মহোৎসবের সময়ও উৎসবের আয়োজন করা হবে। সিএম মনোহর লাল খট্টরের মতে, ৬ দিন ধরে চলা এই উৎসবে ভগবান কৃষ্ণের জীবনের সঙ্গে সম্পর্কিত বিভিন্ন ঘটনা একটি মূকনাটের মাধ্যমে চিত্রিত করা হবে। এছাড়াও থাকবে লাইট সাউন্ড শো। মুখ্যমন্ত্রী বলেন যে, ভগবদ গীতা দেশের স্বাধীনতা সংগ্রামীদের জন্যও অনুপ্রেরণার উত্স।

Manohar Lal Khattar

অন্যদিকে, জানা গিয়েছে যে ১৪ ডিসেম্বর গীতা জয়ন্তী মহোৎসবে হরিয়ানার বিভিন্ন স্কুলের ৫৫  হাজার শিক্ষার্থী একযোগে ১৮টি শ্লোক অনলাইনে পাঠ করবে। জেলা নোডাল অফিসার রামপ্রসাদ, সুনীল দত্ত বলেছেন যে, গীতা একটি রূপান্তরমূলক গ্রন্থ, যা মানবজাতির উন্নতির জন্য ভিত্তি উপাদান হিসাবে কাজ করার ক্ষমতা রাখে। তাই, রাজ্যের নির্বাচিত স্কুলগুলিকে গুগল মিটের মাধ্যমে ৫০ জন শিশুকে যুক্ত করার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। সিএম মনোহর লাল সমস্ত পড়ুয়াদের সঙ্গে এই গুরুত্বপূর্ণ কর্মসূচির অংশ হবেন।

জেলা নোডাল অফিসার জানিয়েছেন, এই ধারাবাহিকতায় জেলার ৫০টি স্কুল যার মধ্যে উচানা ব্লকের সাতটি স্কুল বেছে নেওয়া হয়েছে। শ্রী সনাতন ধর্ম মাধ্যমিক বিদ্যালয় উচানা, সরকারি বালিকা সিনিয়র মাধ্যমিক বিদ্যালয় বরোদা, শিক্ষা ভারতী সিনিয়র সেকেন্ডারি স্কুল ছাতর, সরকারি সিনিয়র সেকেন্ডারি স্কুল কাসুহান, সরকারি বালিকা সিনিয়র সেকেন্ডারি স্কুল ডোমারখান, কন্যা গুরুকুল খেড়া, সরকারি বালিকা সিনিয়র সেকেন্ডারি স্কুল উচানা মান্ডিতে প্রতিদিন অনুশীলন করানো হচ্ছে।