Press "Enter" to skip to content

আগের সরকার হজহাউস নির্মাণ করতো, আমরা কৈলাশ মানস সরোবর নির্মাণ করেছি: যোগী আদিত্যনাথ

[ad_1]

উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ রবিবার গাজিয়াবাদে প্রচারে অংশ নিয়েছিলেন এবং সমাজবাদী পার্টির উপর তীব্র আক্রমণ করেছেন। তিনি বলেছেন যে এখানে আগে একটি হজ হাউস নির্মিত হয়েছিল, যোগী সরকার নির্মাণ করেছে কৈলাস মানসরোবর ভবন।
সাহিবাদের রাজীব কলোনিতে ডোর-টু-ডোর প্রচারের পাশাপাশি সাহিবাদের কৃষ্ণ ডেন্টাল কলেজ এবং নেহেরু নগরের সরস্বতী শিশু মন্দিরে আদিত্যনাথ তার দলীয় কর্মীদের উদ্দেশ্যে ভাষণ দেন।

তিনি বলেন আগে মাফিয়ারা ব্যবসায়ীদের হয়রানি করত, কিন্তু এখন কোনো মাফিয়া কোনো ব্যবসায়ী, ডাক্তার বা গরীব ব্যক্তির সম্পত্তি দখল করার সাহস পায় না। সময় পাল্টেছে। গুন্ডা রাজ শেষ হয়েছে।অতীতে, দরিদ্রদের জন্য রেশন তাদের কাছে পৌঁছাত না এবং তা খাদ্যশস্য মাফিয়াদের মাধ্যমে বাংলাদেশে চলে যেত। কিন্তু আজ গরিবদের কাছে খাদ্যশস্য পৌঁছে যাচ্ছে এবং ১৫ কোটি মানুষ তা পেয়েছে। ‘ডাবল ইঞ্জিন’ সরকার খাদ্যশস্যের দ্বিগুণ উপলব্ধ করছে,’ রাজ্য এবং কেন্দ্রে বিজেপি-নেতৃত্বাধীন ব্যবস্থার কথা উল্লেখ করে যোগী আদিত্যানাথ এই কথা বলেন।

আদিত্যনাথ গ্রাহকদের বিনামূল্যে 300 ইউনিট বিদ্যুৎ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি নিয়ে সমাজবাদী পার্টিকেও নিশানা করেছিলেন, বলেছিলেন যে তাদের শাসনামলে কোনও বিদ্যুৎ সরবরাহ ছিল না। তিনি বলেন, এসপি নির্বাচনে জিততে পারবে না জেনেও অনেক প্রতিশ্রুতি দিচ্ছে।
‘আমরা তরুণদের ট্যাবলেট বিতরণ করেছি এবং তারা বলছে স্মার্ট ফোনও দেবে। তারা জানে যে তারা ক্ষমতায় আসবে না, তাই তারা সবকিছু প্রতিশ্রুতি দিচ্ছে।

আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে বিরোধীদের নিশানা করে বলেন ‘এসপি-বিএসপি সরকারের আমলে কোনও করোনভাইরাস ছিল না, তবে অবশ্যই কারফিউ জারি করা হয়েছিল। আমাদের সময়ে করোনা আছে, কিন্তু কারফিউ নেই, জনজীবন স্বাভাবিক। 2017 সালের আগে পশ্চিম উত্তর প্রদেশের পরিস্থিতি কী ছিল? সর্বত্র ছিল আতঙ্কের পরিবেশ। কিছু কিছু জায়গায় সন্ধ্যার পর কারফিউ-এর মতো পরিবেশ থাকত।’ ভবিষৎ এ তিনি উত্তরপ্রদেশ কে সর্বোচ্চ স্থান এ নিয়ে যাবার জন্য মানুষ কে পাশে থাকার জন্য অনুরোধ করেন।

[ad_2]