Press "Enter" to skip to content

আচমকাই কান্নাকাটি শুরু করল স্বৈরাচারী শাসক কিম জং উন! সবাইকে বলল SORRY! জানুন কেন


নয়া ঃ উত্তর কোরিয়ার () শাসক কিম জং উন (Kim Jong-un) প্রথমবার নিজের ব্যর্থতার জন্য জনতার সামনে ক্ষমা চাইলেন। দ্য গার্জিয়ান সংবাদের রিপোর্ট অনুযায়ী, কিম জং উন মহামারীর কঠিন পরিস্থিতিতে ব্যর্থ হওয়ার নিয়ে ক্ষমা চেয়েছেন। কিম জংকে সবার কাছে ক্ষমা চাওয়ার পর নিজের চোখের জল মুছতেও দেখা গিয়েছে।

নিজের দলের ৭৫ তম বর্ষপূর্তিতে ভাষণ দেওয়ার সময় কিম জং ভাবুক হয়ে পড়েন। কিম জং উন বলেন, তিনি উত্তর কোরিয়ার মানুষের আশামত কাজ করতে পারেন নি, আর এরজন্য তিনি ক্ষমা চাইছেন। রিপোর্ট অনুযায়ী, কিম জং নিজের চশমা খুলে ভাষণ দেওয়ার সময় চোখের জল মোছেন।

তাঁর পূর্বপুরুষ আর ঐতিহ্যের কথা উল্লেখ করে কিম জং বলেন, কিম ২ সং আর কিম জোগ হলের মহান উদ্দেশ্যকে সম্পূর্ণ করার জন্য দেশের মানুষ আমাকে দায়িত্ব দিয়েছিল। কিন্তু আমার চেষ্টা আর আমার সিদ্ধান্ত মানুষের জীবন থেকে সমস্যা কম করার জন্য পর্যাপ্ত প্রমাণিত হয়নি। আমি এরজন্য দুঃখিত।

বিশেষজ্ঞদের মতে এভাবে আচমকা কিম জং উনের মতো মানুষের ভেঙে পড়া এটা প্রমাণ করে যে, করোনা ভাইরাসে মহামারী আর পরমাণু হাতিয়ার নিয়ে জারি নিষেধাজ্ঞার কারণে ওনার নেতৃত্ব অনেক চাপে আছে। নিজের ভাষণে কিম করোনা ভাইরাসের মহামারীর কারণে গোটা বিশ্ব জুড়ে চলা সমস্যার কথা উল্লেখ করেন। কিম দক্ষিণ কোরিয়ার সাথে সম্পর্ক ঠিক করার কথাও উল্লেখ করেন। যদিও, কিম আমেরিকাকে নিয়ে কিছু বলেন নি।