Press "Enter" to skip to content

আন্তর্জাতিক মঞ্চে সপাটে চড় খেল চিন, তালিবানকে ছাড় দেওয়ার দাবি তুলতেই তেড়ে গেল সবাই


নয়া ঃ রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে দ্বারা তালিবানি নেতাদের বিদেশ যাত্রায় ছাড়ের সময়সীমা বাড়ানোর প্রস্তাবকে সব দেশ মিলে নাকোচ করে দিল। চিন তালিবানি নেতাদের যাত্রার সময়সীমা ৯০ দিন থেকে বাড়িয়ে ১৮০ দিন করার প্রস্তাব ের নেতৃত্বাধীন কমিটির কাছে পেশ করেছিল। কিন্তু কোনও দেশই চিনের এই প্রস্তাবে সহমত পোষণ করেনি। নারাজ হওয়া দেশগুলির মতে, তাড়াহুড়ো করে ছাড় দেওয়া ঠিক হবে না। আমাদের আরও অপেক্ষা করতে হবে আর তালিবানদের উপর নজর রাখতে হবে।

বলে দিই, একদিকে তালিবান রাষ্ট্রসংঘে নিজেদের জন্য জায়গার দাবি করেছে, আরেকদিকে একই সময়ে তালিবানের বন্ধু চিন তাঁদের যাত্রার সময়সীমা বাড়ানোর দাবি করেছে রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে। তালিবান তাঁদের দাবি নিয়ে রাষ্ট্রসংঘের মহাসচিবকে চিঠিও পাঠিয়েছে। তাঁরা তালিবানি মুখপাত্র সুহেল শাহিনকে রাষ্ট্রসংঘে স্থায়ী রাজদূত নিযুক্ত করার দাবি তুলেছে।

তালিবানের বিদেশ মন্ত্রী আমীর খান মুত্তাকী সোমবার রাষ্ট্রসংঘের মহাসচিব অ্যান্টোনিও গুতেরেসকে একটি চিঠি লিখে সোমবার সমাপ্ত হওয়া মহাসভার বার্ষিক অধিবেশনে বলতে দেওয়ার জন্য আবেদন জানিয়েছে। গুতেরেসের মুখপাত্র ফারহান হক মুত্তাকীর চিঠির কথা জানিয়েছেন। মুখপাত্র ফারহান হক বলেছেন, ের নতুন রাষ্ট্রসংঘে জায়গা নেওয়ার জন্য নয় সদস্যের ক্রেডেনশিয়াল কমিটির কাছে আবেদন জানিয়েছে। ফারহান জানান, এই সপ্তাহে সমিতির সঙ্গে বৈঠক হওয়ার কোনও সম্ভাবনা নেই। তাই তালিবানের প্রতিনিধিদের এবার হতাশ হয়েই থাকতে হবে।

বলে দিই, আর চিনের পাশাপাশি রাশিয়াও তালিবানকে স্বীকৃতি দিতে উঠেপড়ে লেগেছে। এছাড়াও তাঁরা আফগানিস্তানের প্রতিবেশী দেশগুলিকে নিয়ে একটি নতুন সংগঠন বানানোর প্রচেষ্টায় আছে। ওই সংগঠনে চিন, পাকিস্তান, ইরান, তাজিকস্তান, তুর্কমেনিস্তান আর উজবেকিস্তান রয়েছে।