Press "Enter" to skip to content

আফগানিস্তানের শিখ আর হিন্দুদের নরসংহার থেকে বাঁচান! মোদী সরকারকে কাতর আবেদন শিখ সম্প্রদায়ের


ওয়েবডেস্কঃ আমেরিকার আফগান শিখ সম্প্রদায় সরকারের () কাছে আফগানিস্তানে () থাকা শিখেদের পুনর্ের জন্য সাহায্যের আবেদন জানিয়েছে। দেশের হিংসার শিকার হওয়া ৬৫০ টি পরিবারের কাছে এটাই একমাত্র বিকল্প। উল্লেখ্য, আফগানিস্তানে কাবুল, জালালাবাদ আর গাজিতে হিংসার শিকার হওয়া শিখ সংখ্যালঘুরা ভারতে শরণ নিতে চাইছে।

এর আগে ভারত সরকারের পক্ষ থেকে নেওয়া পদক্ষেপে আশার আলো দেখে আফগান শিখ সম্প্রদায়ের নেতা ভারতের কাছে আবেদন করেছিল যে, আফগানিস্তান থেকে শিখ আর হিন্দুদের দীর্ঘকালীন প্রবেশের সাথে সাথে আইনি প্রবেশ আর রাজনৈতিক শরণ দেওয়া হোক। আমেরিকায় থাকা শিখ সম্প্রদায়ের নেতারা জানান, আফগানিস্তানে ধার্মিক সংখ্যালঘুদের পরিস্থিতি সঙ্কটজনক। আর এটা থেকে তাদের উদ্ধার করা খুব দরকার। এই সংখ্যালঘুরা শুধুমাত্র ভারতকেই তাদের সুরক্ষিত আশ্রয়স্থল হিসেবে দেখে।

আফগানিস্তানের শিখ কমেটি ফর গ্লোবাল শিখ কাউন্সিলের সভাপতি পরমজিত সিং বেদি বলেন, ‘এরকম সময়ে যখন ের মহামারীর জন্য ভারতে সঙ্কটের পরস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে আর ভারতে লকডাউন জারি আছে, আমরা এই সময়েও নিরুপায় হয়ে ভারতের কাছে জানাচ্ছি যে, আফগানিস্তানে থাকা শিখেদের সুরক্ষা নিয়ে আমরা ভয়ের মধ্যে আছি।” বেদি বলেন, ‘আমরা মোদী সরকারের কাছে কাবুল থেকে একটি বিমানের ব্যবস্থা করার জন্য আর সেখানে শিখেদের বর্তমান পরিস্থিতিতে নিয়ে হস্তক্ষেপ করার আবেদন জানাচ্ছি।”

বেদি আইএসআইএস তরফ থেকে ২৫ মার্চে করা হামলা নিয়ে চিন্তা জাহির করেন। আপনাদের জানিয়ে দিই, ওই হামলা কাবুলের গুরুদ্বরাতে হয়েছিল, আর সেখানে ২৫ জন শিখকে হত্যা করা হয়েছিল। বেদি বলেন, ‘সেখানে , বয়স্ক আর চার বছরের বাচ্চাও ছিল। এরা সবাই করোনার জন্য সবার সুস্বাস্থের কামনায় সেখানে একত্রিত হয়েছিল। কিন্তু ধার্মিক কট্টরপন্থীরা তাদের হত্যা করে দেয়।”