Press "Enter" to skip to content

আমরা তালিবানদের আশ্রয় দিয়েছি বলেই আজ আফগানিস্তান দখল করেছে! জানাল পাকিস্তান


নয়া দিল্লিঃ তালিবান নিয়ে পাকিস্তানের তরফ থেকে বড় বয়ান সামনে এসেছে। পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ রশিদ করেছেন যে, ইসলামাবাদ দীর্ঘদিন ধরে তালিবানের সংরক্ষক হিসেবে কাজ করেছে এসেছে। রশিদ বলেছেন, আমরা ওই সংগঠনকে আশ্রয় দিয়ে তাঁদের মজবুত করার কাজ করেছি, আর তাঁর পরিণাম স্বরূপ আজ ২০ বছর পর এই সংগঠন আবারও শাসন করবে। রশিদ আরও বলেন, আমরা তালিবানকে পাকিস্তানে আশ্রয়, শিক্ষা আর ঘর দিয়েছি। আমরা ওঁদের জন্য সবকিছু করেছি।

বলে দি, পাকিস্তান আর তালিবানের বন্ধুত্ব ভারতের জন্য বড় ্তার বিষয় হয়ে দাঁড়াতে পারে। কারণ পাকিস্তান এতদিন নিজেদের জঙ্গি সংগঠনগুলিকে দিয়ে একের পর এক হামলা চালাত। আর এখন তালিবানের সহযোগিতা নিয়ে ভারতে বড়সড় আঘাত দেওয়ার প্রচেষ্টায় থাকবে। যদিও, তালিবান এটাও বলছে যে, তাঁরা ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় এবং কাশ্মীর নিয়ে নাক গলাবে না। কিন্তু পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর এই বয়ান পরিষ্কার বুঝিয়ে দিচ্ছে যে, তালিবান পাকিস্তানের নিয়ন্ত্রণেই রয়েছে।

অন্যদিকে পাকিস্তানের খানকে যখন পাকিস্তানে তথাকথিত জঙ্গিদের সুরক্ষিত আশ্রয় স্থল নিয়ে প্রশ্ন করা হয়, তখন তিনি বলেন, কোথায় রয়েছে সেই সুরক্ষিত আশ্রয় স্থল? পাকিস্তানে ৩০ লক্ষ আফগান শরণার্থী রয়েছে, তাঁদের মধ্যে তালিবানদের খুঁজে বের করা মুশকিল। ইমরান খান এও বলেন যে, তালিবানের যোদ্ধারা খুবই সাহসী হয় আর তাঁরা বিদেশি শক্তিকে পরাস্ত করার জন্য অনেক কুরবানি দিয়েছে।

বলে দিই, আফগানিস্তানে তালিবান কবজা করার পরই পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান জাহির করে বলেছিলেন যে, আফগানিস্তান দাসত্বের শিকল ছিঁড়ে বেরিয়ে এসেছে। পাক প্রধানমন্ত্রীর ওই বয়ানও স্পষ্ট করে দিয়েছিল যে, পাকিস্তান তালিবানের সঙ্গেই রয়েছে।