Press "Enter" to skip to content

‘আমরা শ্রী রামের বংশধর”, অমিত শাহের সভায় মুসলিম যুবকের রামধ্বনি দেওয়ার ভাইরাল ভিডিও

সাহারানপুরঃ উত্তর প্রদেশের সাহারানপুরে আয়োজিত অমিত শাহের () একটি জনসভায় এক মুসলিম যুবক ‘” ও ‘ভারত মাতা কী জয়” দেন। মুসলিম যুবকের এই স্লোগানে দেববন্দের উলেমা চটে গিয়েছেন। দেওবন্দের উলেমা মুফতি আসাদ কাসমি বলেছেন যে, ওই যুবককে মৌলানাদের সঙ্গে দেখা করে তওবা করা উচিৎ। যদিও, দেওবন্দের উলেমার কথা না শুনে আহসান নামের ওই যুবক পাল্টা দাবি করেছেন যে, ভগবান শ্রী রাম তাঁর পূর্বপুরুষ এবং ভারত মাতার জয়ধ্বনি দিতে তাঁর কোনও সমস্যা নেই।

উল্লেখ্য, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অমিত শাহ শনিবার সাহারানপুরে একটি জনসভা করেন। সেখানে এক মুসলিম যুবককে জয় শ্রী রাম আর ভারত মাতার জয় স্লোগান দিতে দেখা যায়। তাঁর এই স্লোগানবাজির ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল ( Video) হয়ে যায়।

ওই মুসলিম যুবকের হওয়ার পর দেওবন্দের উলেমা মুফতি আসাদ কাসমি বলেন, ইসলাম ধর্মে এমন স্লোগান দেওয়ার অনুমতি নেই। ওই যুবককে মৌলবিদের কাছে গিয়ে তওবা করা উচিৎ। কারণ এরকম স্লোগান দেওয়া ইসলামে হারাম। একই সঙ্গে তিনি বলেন, আমাদের জাগতিক প্রভুদের খুশি করার জন্য এ ধরনের স্লোগান দেওয়া উচিত নয়। আহসানকে ইসলাম থেকে বহিষ্কারেরও হুমকি দেন তিনি।

উলেমার মন্তব্যের প্রতিক্রিয়া দিয়ে আহসান বলেন, ‘ভগবান রাম আমাদের পূর্বপুরুষ। আমরা রামের বংশধর। জয় শ্রী রাম বলা বা ভারত মাতার জয় বলায় আমার কোনও আপত্তি নেই। আমরা যেই দেশে থাকি, তাঁর জয়জয়কার করার উচিৎ।”

https://platform.twitter.com/widgets.js

উলেমা দ্বারা ধর্ম থেকে বহিষ্কারের হুমকি নিয়ে আহসান বলেন, ‘এটা ওনার কাজ। আর আমি আমার কাজ করছি। আমার আল্লাহও জানে, যে কী বলছে। আমি এগুলো নিয়ে ভাবি না। আমার তথ্য মতে, এখন দারুল উলুম থেকে এই নিয়ে কোনও বয়ান আসেনি। যখন আসবে, তখন আমি কথা বলব।”