Press "Enter" to skip to content

‘আমি এখানেই আছি, কোথাও যাব না!” তালিবানিদের চোখে চোখ রেখে চ্যালেঞ্জ আফগানিস্তানের মহিলা মেয়রের


নয়া দিল্লিঃে () তালিবানদের দখলের পর পরিস্থিতি দ্রুত গতিতে বদলাচ্ছে। , উপরাষ্ট্রপতি সহ বড়বড় আধিকারিকরা দেশ ছেড়ে পালিয়েছেন। আফগানিরা সবকিছু ছেড়ে প্রাণ বাঁচাতে দেশ ছাড়তে চাইছেন। কিন্তু তাঁদের সামনে সমস্ত রাস্তা বন্ধ। কাবুলিওয়ালাদের দেশে মহিলাদের অবস্থা শোচনীয় হয়ে উঠেছে। আর এরই মধ্যে আফগানিস্তানের প্রথম মহিলা মেয়র জারিফা গফারি (Zarifa Ghafari) সংগঠন তালিবানকে চ্যালেঞ্জ করেছেন। জারিফা বলেছেন, ‘আমি অপেক্ষা করছি, তালিবানরা আমার কাছে এসে অন্যদের মতো আমাকে মেরে ফেলুক।”

বারদক প্রান্তের মেয়র জরিফা এই কথা একটি সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে বলেছেন। জরিফা জানিয়েছেন, এক সপ্তাহ আগে দেশের ভবিষ্যৎ অনেক ভাল ছিল। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতি দেখে তিনি সমস্ত আশা ছেড়ে দিয়েছেন। জরিফা বলেছেন, ‘আমি আমার ার্টমেন্টের কামড়ায় বসে তালিবানের অপেক্ষা করছি। এখানে আমার আর আমার পরিবারের সাহায্য করার মতো কেউ নেই। ওঁরা আমাকে আর আমার মতো বাকিদের মেরে ফেলবে। কিন্তু আমি আমার পরিবারকে ছেড়ে যেতে পারব না। আমি যাব কোথায়?”

২৭ বছরের জরিফা ২০১৮ সালে আফগানিস্তানের বারদক প্রান্তের সবথেকে যুব আর প্রথম মহিলা মেয়র হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন। তালিবানের প্রকোপ বাড়ার পড় তাকে প্রতিরক্ষা মন্ত্রালয়ের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল। তাঁর উপর হামলায় আহত সেনা আর সাধারণ মানুষের দেখভালের দায়িত্ব ছিল। গত বছরের ১৫ নভেম্বর জরিফার বাবাকে হত্যা করেছিল তালিবানরা।

এর আগে জরিফা বলেছিলেন, ‘দেশের যুবরা জানে যে কী হচ্ছে। তাঁদের কাছে সোশ্যাল মিডিয়া আছে আর তাঁরা নিজেদের মধ্যে যোগাযোগ রাখে। আমি আশা করছি ওঁরা মানুষের উন্নতি আর অধিকার নিয়ে লড়াই লড়বে।”