Press "Enter" to skip to content

আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়ার কড়া সিদ্ধান্তে একঘরে হল চীন! এবার ঝটকা দিতে চলেছে কানাডাও

[ad_1]

নয়া দিল্লিঃ আমেরিকা (United State) চীনের (China) বেজিংয়ে ২০২২ সালে হতে চলা শীতকালীন অলিম্পিককে (2022 Winter Olympics) কূটনৈতিক বয়কট করেছে। আর এবার আমেরিকার দেখানো পথেই অস্ট্রেলিয়াও (Australia) বেজিং অলিম্পিকের কূটনৈতিক বয়কট করার সিদ্ধান্ত নিয়ে চীনকে জোর ঝটকা দিল। অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন বেজিং অলিম্পিকের কূটনৈতিক বহিষ্কারের কথা বলেছেন। এর আগে চীনে মানবাধিকার উলঙ্ঘনের অভিযোগ তুলে আমেরিকা ২০২২ বেজিং অলিম্পিকের কূটনৈতিক বয়কটের কথা ঘোষণা করেছিল।

আমেরিকার এই পদক্ষেপ চীনের জন্য কড়া একটি বার্তা বহন করছে। যদিও, আমেরিকার সিদ্ধান্তে প্রতিক্রিয়া দিয়ে চীনের বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ন বলেছেন যে, আমেরিকার এই কূটনৈতিক বহিষ্কার করার ভাবনা অলিম্পিকের ভাবনার লঙ্ঘন।

যুক্তরাষ্ট্র এমন এক সময়ে এই ঘোষণা করেছে, যখন চীন এ ধরনের কূটনৈতিক বয়কটের বিরুদ্ধে ‘প্রতিশোধমূলক ব্যবস্থা’ নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি জেন ​​সাকি বলেছেন যে আমেরিকান ক্রীড়াবিদরা এই অলিম্পিক গেমসে অংশ নেবে এবং ক্রীড়াবিদদের আমাদের পূর্ণ সমর্থন থাকবে, তবে আমরা গেমস সম্পর্কিত বিভিন্ন ইভেন্টে অংশ নেব না। কয়েক মাস ধরে আলোচনার পর এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে ওয়াশিংটন।

আগামী বছরের ফেব্রুয়ারিতে চীনের রাজধানী বেজিংয়ে শীতকালীন অলিম্পিক অনুষ্ঠিত হবে। সাকি বলেন, “চীনের জিনজিয়াংয়ে মানবাধিকার লঙ্ঘন এবং নৃশংসতার পরিপ্রেক্ষিতে, মার্কিন কূটনীতিকরা গেমসটিকে একটি স্বাভাবিক ঘটনা হিসাবে বিবেচনা করবেন। আমরা চীন এবং এর বাইরে মানবাধিকারের উন্নয়নে কাজ চালিয়ে যাব।” বলে দিই যে, চীন জিনজিয়াং, তিব্বত এবং হংকং-এ মানবাধিকার লঙ্ঘনের জন্য অভিযুক্ত।

মার্কিন সিদ্ধান্তে আপত্তি জানিয়ে চীন হুঁশিয়ারি দিয়েছে যে, ওয়াশিংটন ফেব্রুয়ারির শীতকালীন অলিম্পিক গেমস কূটনৈতিক বয়কট করলে বেইজিং প্রতিশোধ নেবে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে চীনা দূতাবাসের মুখপাত্র লিউ পেংইউ বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র যদি তা করে থাকে তবে তা হবে রাজনৈতিকভাবে উস্কানিমূলক পদক্ষেপ। চীন বলেছে, এই পদক্ষেপ ছলনামূলক এবং অলিম্পিক চেতনার মারাত্মক বিকৃতি। পেংইউ বিডেন প্রশাসনের সিদ্ধান্তকে একটি রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র বলে অভিহিত করে বলেছেন। তিনি বলেছেন, এটি ইভেন্টের সাফল্যকে প্রভাবিত করবে না।

কানাডা বেইজিং-এ ২০২২ সালের শীতকালীন অলিম্পিক গেমসের কূটনৈতিক বয়কট সম্পর্কে মার্কিন সিদ্ধান্ত সম্পর্কে সচেতন এবং এই বিষয়ে সহযোগীদের সঙ্গে পরামর্শ চালিয়ে যাচ্ছে। গ্লোবাল অ্যাফেয়ার্স কানাডার মুখপাত্র ক্রিস্টেল চার্টেন্ড বলেছেন, চীনে মানবাধিকার লঙ্ঘনের উদ্বেগজনক প্রতিবেদনে কানাডাও গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। অন্যদিকে, ইতালি জানিয়েছে যে তারা বর্তমানে বেইজিং ২০২২ শীতকালীন অলিম্পিকের মার্কিন কূটনৈতিক বয়কটের সাথে যোগ দেওয়ার পরিকল্পনা করছে না।

[ad_2]