Press "Enter" to skip to content

আর খোঁড়াখুঁড়ি হবে না বারবার, রাস্তা নির্মাণের ক্ষেত্রে মাস্টার প্ল্যান কেন্দ্রের! বদলে যাবে ভারতের রূপরেখা

শীঘ্রই দেশের চিত্র বদলাতে চলেছে গতিশক্তি মাস্টার প্ল্যানের মাধ্যমে (Gati Shakti Master Plan)। আগামী ১৩ অক্টোবর এই বিষয়ে প্রকল্পের রূপরেখা দেশের সামনে উপস্থাপন করবেন। দেশের উন্নতিকে আরও দ্রুতগতিতে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য, এই প্রকল্প বাস্তবায়িত করা হচ্ছে। এই প্রকল্পের অধীনে প্রধান ইনফ্রা সং প্রকল্পগুলির জন্য একটি সাধারণ দরপত্র বিবেচনা করা হবে।

চলতি বছর দেশের ৭৫ তম স্বাধীনতা দিবসের মঞ্চ থেকেই গতি শক্তি প্রকল্প ঘোষণা করেছিলেন। প্রধানমন্ত্রীর এই গতিশক্তির উদ্দেশ্য হল- কেন্দ্রীয় এজেন্সি, রাজ্য সংস্থা, শহুরে স্থানীয় সংস্থা এবং বেসরকারি খাতের মধ্যে কার্যকরভাবে সমন্বয় করে গ্রিনফিল্ড রাস্তা, রেল এবং অপটিক্যাল ফাইবার কেবল, লাইন এবং বিদ্যুৎ লাইনের মতো ইউটিলিটি সম্পর্কিত ক্রিয়াকলাপগুলিকে একসঙ্গে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া। নির্বাচিত ভৌগোলিক এলাকায় একক নোডাল এজেন্সিকে দায়িত্ব দিয়ে, তার মধ্য দিয়ে সাধারণ টেন্ডার সহ সমস্ত কার্যক্রম শুরু করা হবে।

এই প্রকল্পের বিষয়ে এক আধিকারিক জানিয়েছেন, ‘প্রধানমন্ত্রী মোদী এই প্রকপ্লের উপর কাজ করার জন্য ভীষণই আগ্রহী। এই প্রকল্পের উদ্দেশ্য হল, কোন প্রকল্পের সমস্যার সমাধান করে তা দ্রুতগতিতে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া। সরকারের মধ্যে সাধারণ টেন্ডারিং একটি চ্যালেঞ্জিং কাজ। তবে এই কাজকে সম্পন্ন করতে পারলে, তা গেম চেঞ্জার হয়ে দাঁড়াবে। এই প্রকল্পকে অনেক দূর এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে’।

এখানে প্রধানমন্ত্রীর গতিশক্তি প্রধানমন্ত্রী গতিশক্তিকে একটি সমন্বিত পরিকল্পনা হিসাবে প্রস্তুত করা হয়েছে। যাতে কোন কাজে সমস্যা না থাকে এবং সমস্ত বিভাগকে একসঙ্গে নিয়ে চলাই হল এর প্রধান উদ্দশ্যে।

এই বিষয়ে এক আধিকারিক জানিয়েছেন, ‘দূরত্ব কমিয়ে এনে দক্ষতার সঙ্গে কাজ দ্রুত সম্পন্ন করা এই গতিশক্তি প্রকল্পের প্রধান উদ্দেশ্যে। এলএনজি বা মিথেনলের মতো বিকল্প জ্বালানির উচ্চতর ব্যবহারের উপর জোর দিতে হবে। ২০২৪-২৫ সালের মধ্যে দেশে ১৭০০০ কিমি দীর্ঘ ট্রাঙ্ক পাইপলাইন দ্বিগুণ করে ৩৪৫০০ কিমি করার লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে।