Press "Enter" to skip to content

“আল্লাহ মাফ করবে না”- গণপতি বিসর্জনের শুভেচ্ছা জানাতেই শাহরুখ খানকে কটাক্ষ কট্টরপন্থীদের

বলিউড অভিনেতা শাহরুখ খান রবিবার গণেশ চতুর্থীর বিসর্জনের আগে ভগবান গণেশের একটি মূর্তির ছবি শেয়ার করেছেন সোশ্যাল মিডিয়াতে। তিনি পোস্টে লিখেছেন, “গণপতি বাপ্পা মোরিয়া” সঙ্গে বলেছেন,তিনি তিনি এবং তার পরিবার বিঘ্নহর্তাকে বিদায় জানাচ্ছেন।

ফলত, ইসলামপন্থীরা তার টাইমলাইনে তেড়ে এসে তাকে ে ‘ান্তরিত’ হতে বলে, কারণ মূর্তিপূজা ইসলামে ‘হারাম’। কিন্তু আশ্চর্যের বিষয় ব্লুটিক ভেরিফাইড অ্যাকাউন্ট থেকেও কট্টরপন্থীরা শাহরুখ খানকে আক্রমণ করেছে।

পাকিস্তানপন্থী টুইটার ব্যবহারকারী সামিরা খান, যিনি বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রে থাকেন তার টুইটার বায়ো অনুসারে শাহরুখ খানকে ইতোমধ্যেই ‘ধর্মান্তরিত’ হতে বলেছিলেন কারণ তার মতে মূর্তিপূজা ইসলামে সবচেয়ে বড় পাপ। অন্যান্য ইসলামপন্থীরা তাকে সমর্থন করে শাহরুখ খানকে ‘কাফির’ বলে অভিহিত করেছে। যেহেতু শাহরুখ খান ভগবান গণেশের মূর্তি পূজা সহ উদযাপন করেন, তাই তাকে ইসলামপন্থীরা ‘মুনাফিক’ হিসেবে চিহ্নিত করেছে।অনেকে তাকে শিরক এবং কাফির বলে অভিহিত করেছেন এবং অনেক মৌলবাদী বিশ্বাস করেন যে কাফির এবং ‘অবিশ্বাসীরা’ মৃত্যুদণ্ড পাওয়ার যোগ্য।

পাকিস্তান থেকে তাঁর ভক্তরা, যেখানে বলিউড এবং খানরা খুব জনপ্রিয়, তারাও বেশ ক্ষুব্ধ হয়েছেন। শোয়েব নিয়াজি, যিনি তার প্রোফাইল অনুযায়ী পাকিস্তান নিউজ চ্যানেল জিও নিউজের সাথে কাজ করেছেন, তিনি বেশ বিরক্ত হয়েছেন কারণ একজন ‘রোল মডেল’ মূর্তিপূজায় লিপ্ত হচ্ছে। আরেকজন ব্যবহারকারী দাবি করেছেন, যে একজন ভাল মানুষ প্রমাণ করার জন্য মূর্তি পূজা আবশ্যক নয় এবং এটি করার মাধ্যমে, তিনি হিন্দুদের প্রতি আনুগত্য প্রমাণ করছেন।

//platform.instagram.com/en_/embeds.js

তবে শাহরুখ খান এ বিষয়ে এখনও পর্যন্ত কোনো প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেননি। শাহরুখ খানকে সোশ্যাল মিডিয়ার ট্রল করার এই ঘটনা কিন্তু প্রথম নয়। বিগত চার বছর ধরে তিনি গণেশ পূজার শুভেচ্ছা জানিয়ে আসছেন এবং একইরকমভাবে উগ্রপন্থীদের দ্বারা আক্রমণের শিকার হচ্ছেন।