Press "Enter" to skip to content

ইচ্ছে করে হিন্দু তরুণীকে ‘গোমাংস” খাওয়ানোর অভিযোগ রেস্তোরাঁর মালিকের বিরুদ্ধে



ওয়েবডেস্কঃ হিন্দুদের মধ্যে পবিত্র এবং আরাধ্য। হিন্দুরা গরুকে মাতা বলেই পুজো করে। গোটা বিশ্বেই যেখানে যেখানে হিন্দুরা থাকে তাঁরা সবাই গরুকে মাতা বলেই মানে। কিন্তু একটি বিশেষ সম্প্রদায়ের মানুষ হিন্দুদের ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করতে গরুর মাংস খেয়ে থাকে। েও গরুর মাংসের রমরমা বাজার। যদিও বিজেপি শাসিত কয়েকটি রাজ্যে এখন ‘” আইনত অপরাধ। ধরা পড়লে কঠোর শাস্তি দেওয়ার নিদান রয়েছে।

তবে গোটা বিশ্বেই গরুর মাংস খাওয়া আর গোহত্যা করায় কোনও নিষেধাজ্ঞা নেই। বিশেষ করে ইসলামিক কান্ট্রিগুলোতে। এরকমই ভারতের প্রতিবেশী দেশ বাংলাদেশেও গোমাংসের রমরমা ব্যবসা চলে। বিশেষ করে কুরবানি ঈদের দিনে বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা সহ বিভিন্ন এলাকায় গরুর রক্তে রাস্তাঘাট লাল হয়ে যায়। বহুবার সেই ঘটনার ভিডিও আর ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। চারিদিকে নিন্দার ঝড়ও বয়ে গেছে। তবুও বাংলাদেশীরা এই নিয়ে কোনদিনও পাত্তা দেয়নি কাউকে।

আর এবার বাংলাদেশ থেকে এক ভিডিও ভাইরাল হচ্ছে। যেখানে এক তরুণীকে ইচ্ছে করে গোমাংস খাওয়ানোর অভি উঠেছে রেস্তোরাঁর মালিকের বিরুদ্ধে। অভিযোগ, ওই তরুণী বাংলাদেশের বগুড়া শহরের রানা প্লাজার সব চেয়ে বড় রেস্টুরেন্ট, সম্পাস ডাইনাতে যান। সেখানে গিয়ে তিনি চিংড়ি মাছ অর্ডার করেন। রেস্তোরাঁ থেকে তাঁকে চিংড়ি মাছের ডিশই দেওয়া হয়, কিন্তু তাঁর সঙ্গে মিশিয়ে দেওয়া হয় গোমাংস।

তরুণী ব্যাপারটি বুঝতে পেরে রেস্তোরাঁর মালিককে ডেকে অভিযোগও করেন। তরুণী অভিযোগ করার সময় কান্নায় ভেঙে পড়েন। তিনি শুধু বারবার এটাই জানতে চান যে, কেন তাঁর সঙ্গে এমন করা হল। তরুণী বলেন, আমি এই কারণেই বিরিয়ানি খাইনা রেস্তোরাঁতে গিয়ে। আর এবার রেস্তোরাঁর মালিকরা চিংড়ি মাছের মধ্যেও গোমাংস মিশিয়ে দিচ্ছে। তরুণী অভিযোগ করতে করতে কান্নায় ভেঙে পড়েন। দেখুন সেই ভিডিও …