Press "Enter" to skip to content

ইজরায়েল-হামাসের যুদ্ধবিরতি মাত্র কয়েকদিনের! আবারও হতে পারে ভয়ানক সংঘর্ষ


নয়া ঃ অবশেষে ১১ দিনের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের পর আর প্যালেস্তাইনের উগ্রবাদী সংগঠন হামাসের মধ্যে লাগু হয়েছে। দুই পক্ষই এটিকে নিজের জয় বলে দাবি করে চলেছে। ওয়াকিবহাল মহলের মতে এই যুদ্ধবিরতি মাত্র কয়েকদিনের, কারণ দুই পক্ষের মধ্যে যেই প্রধান সমস্যা ছিল সেটার কোনও সমাধানই হয়নি। আগামী দিনে আবারও দুই পক্ষের মধ্যে ভয়ানক সংঘর্ষ বাধতে পারে।

১১ দিনের ইজরায়েল-হামাস যুদ্ধের পর গাজায় উগ্রবাদী সংগঠনের সদস্যরা উর্দি পরে হাওয়ায় বন্দুক উঁচিয়ে গাজা সিটিতে প্যারেড করছে। গাজায় হামাসের টপ লিডাররা প্রথমবার এভাবে জনসমক্ষে এসেছে। হামাসের জঙ্গিরা নিজেদের শক্তি প্রদর্শন করছে এখন। শনিবার যুদ্ধবিরতির প্রথম দিন ছিল, আর ওই দিনে দুই পক্ষের মধ্যে কোনও সংঘর্ষের পাওয়া যায়নি। মিশরের মধ্যস্থতাকারীরা যুদ্ধবিরতি নিশ্চিত করার পর দুই পক্ষের মধ্যে বার্তার আয়োজন করছে।

হামাস আর ইজরায়েলের মধ্যে এক দশকে এটা চতুর্থ যুদ্ধ। আর এই যুদ্ধে ইজরায়েল গাজা শহরে হাজার হাজার মিসাইল হামলা করে একের পর এক বিল্ডিং, হামাসের গুপ্ত সুড়ঙ্গ এবং হামাসের টপ কম্যান্ডারদের নিকেশ করে। হামাসও লাগাতার ইজরায়েলের দিকে রকেট ফায়ার করে যায়। কিন্তু ইজরায়েলের এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম মজবুত থাকায় তাঁদের প্যালেস্তাইনের তুলনায় অনেক কম ক্ষয়ক্ষতি হয়।

শনিবার হামাসের সহস্র সদস্যরা মিলিটারি ড্রেস পরে নিজেদের মৃত কম্যান্ডার ‘েম ইসা”র স্মরনে প্যারেড করে। হামাসের টপ লিডার ইয়াহিয়া সিনওয়ার নিহত কম্যান্ডার ইসার প্রতি নিজের সমবেদনা ব্যক্ত করে। দুই পক্ষের যুদ্ধের পর ইয়াহিয়া সিনওয়ার প্রথমবার সার্বজনীন ভাবে প্রকাশ্যে আসে।