Press "Enter" to skip to content

ইমরান খান আমার বড় ভাই, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসা করে ফের বিতর্কে সিধু

অমৃতসরঃ পাঞ্জাবের প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি () আরও একবার বিতর্কে জড়িয়ে পড়লেন। করতারপুর করিডোর থেকে গুরুদ্বার শ্রী করতারপুর সাহিবের দর্শন করতে পাকিস্তানে (Pakistan) পৌঁছান সিধু পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে (Imran Khan) নিজের বড় ভাই বলে সম্বোধন করেছেন। গতবারও সিধু যখন পাকিস্তান গিয়েছিলেন, তখনও করতারপুর করিডোর খোলার ইস্যু নিয়ে পাকিস্তানি সেনা প্রধান বাজওয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছিলেন তিনি। সিধুর এই সাক্ষাতের পর দেশজুড়ে ওনাকে নিয়ে নিন্দার বয়ে যায়।

সিধুর সঙ্গে এই সফরে পাঞ্জাব কংগ্রেসের পর্যবেক্ষক হরিশ চৌধুরী, মন্ত্রী পরগট সিং, অমরিন্দর সিং রাজা ছাড়াও কয়েকজন কংগ্রেস নেতাও গিয়েছেন। এর আগে পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং চন্নি রাজ্যের সভাপতি সিধুর সঙ্গে ১৮ নভেম্বর করতারপুর সাহিব যাওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন, কিন্তু সিধু নিজের সমর্থক গোষ্ঠীর সঙ্গে যাওয়ার জন্য ইচ্ছুক ছিলেন, আর এই কারণেই দুজনাই আলাদা যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন।

দলের সূত্র অনুযায়ী, মুখ্যমন্ত্রী চন্নি নিজের সঙ্গে যাওয়ার জন্য সিধুকে বলেছিলেন ঠিকই, কিন্তু সিধু রাজি হন নি। এরপর চন্নি সরকার ওনাকে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা তথা AAP বিধায়ক হরপাল সিং চামির সঙ্গে যাওয়ার কথা বলেছিল, কিন্তু বিরোধী দলনেতা এই প্রস্তাব খারিজ করে দেন। উনি নিজের দলের রাজ্য সভাপতি এবং দলের বিধায়কদের সঙ্গে করতারপুর সাহিব যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন।

তবে সিধুকে নিয়ে শুধু ইমরান খানকে বড় ভাই বলার জন্যই বিতর্ক সৃষ্টি হয়নি। এর আগেও সিধু পাকিস্তানের সঙ্গে নিজের সম্পর্ক নিয়ে বহু বিতর্ক খাড়া করেছিলেন। বিশেষ করে হামলার পর পাকিস্তানকে দরাজ সার্টিফিকেট দিয়েছিলেন এই সিধুই। এছাড়াও পাকিস্তানে গিয়ে খালিস্তানি নেতার সঙ্গে ছবি তোলার জন্যও সিধুকে নানান কটাক্ষের শিকার হতে হয়েছিল।