Press "Enter" to skip to content

ইসলামিয়া হাসপাতালের ম্যানেজিং কমিটিতে নেই কোনো অমুসলিমের নাম! শুরু জোর বিতর্ক


রবিবার দিন ইসলামিয়া হাসপাতালের নতুন ভবন উদ্বোধন করেন ফিরহাদ হাকিম। হাসপাতালে স্বাস্থ্যসাথী কার্ড ব্যবহার করে পাওয়া যাবে বলে ঘোষণা করা হয়েছে। এই হাসপাতালে নতুন কোভিড ইউনিটের উদ্বোধনও করা হয়েছে। ১০০ টি শয্য, ২০ টি আইসিইউ,৫০টি বাইপ্যাপ মেশিন, ১৫টি ভেন্টিলেটর ও ৪০০ টি অক্সিজেন সিলিন্ডারকে নিয়ে কোভিড চিকিৎসা শুরু করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

মমতা ব্যানার্জীর সরকার ৩ কোটি ৭৫ লক্ষ টাকা দিয়ে এই হাসপাতাল নির্মাণে সাহায্য করেছেন বলে জানান কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম। তবে হাসপাতালের ভবন উদ্বোধনের সাথে সাথে তৈরি হয়েছে নতুন বিতর্ক। আসলে এই হাসপাতালে এক ছবি ভাইরাল হয়েছে যা নিয়ে জোর বিতর্ক তৈরি হয়েছে। ছবিতে ইসলামিয়া হাসপাতালের ম্যানেজিং কমিটির সদস্যদের নাম রয়েছে।

এই ছবি শেয়ার করে অনেকেই প্ৰশ্ন তুলেছেন যে ম্যানেজিং কমিটিতে কেন কোনো অমুসলিম ব্যাক্তির নাম নেই? কেন মুসলিম ব্যাতিত অন্য কোনো ধর্মের ব্যাক্তি নেই। এটাই কি ধৰ্মনিরপেক্ষতার পরিচয়? সোশ্যাল মিডিয়ায় বিশেষ করে ফেসবুক ও টুইটারে এই হাসপাতালের ম্যানেজিং কমিটিকে কেন্দ্র করে জোর বিতর্ক ছড়িয়েছে।

দানিস ভদ্র নামের এক সোশ্যাল মিডিয়ায় ইউজার লিখেছেন, “হচ্ছে টা কি কোলকাতায়!
রোগীর আবার ধর্ম? কোলকাতায় ইসলামীয়া হাসপাতাল খুলে দিলেন ফিরহাদ হাকিম। যে কিনা এক সময় হিন্দুদের মন্দিরের সভাপতি ছিলেন।
ইসলামিয়া হসপিটালে ব্যানার্জি, চ্যাটার্জি, ঘোষ, দাস, ঝা, ভট্টাচার্য্য, মন্ডল, পাণ্ডে, চৌধুরী, কুন্ডু এদের দেখা যাচ্ছে না কেন? নাকি ডাক্তারদের মধ্যেও ধর্মীয় কোনো ব্যাপার আছে? এ বিষয়ে সন্মানীয় ডাক্তারদের দৃষ্টি আকর্ষন করছি।”

https://platform.twitter.com/widgets.js

ি নেতা দেবদত্ত মাজি লিখেছেন, “সেকুলার ইন্ডিয়াতে ইসলামিয়া হাসপাতাল কেন?” স্বরূপ চট্টোপাধ্যায় নামের এক টুইটার ব্যবহারকারী লিখেছেন, ” পশ্চিমবঙ্গ কি ের অংশ নাকি পশ্চিমবাংলাদেশ হয়ে গেল। হাসপাতালের নাম আর ম্যানেজিং কমিটির সদস্যদের নাম দেখুন।”

https://platform.twitter.com/widgets.js

 

ঈশানি রায় নামের এক সোশ্যাল ব্যাবহারকারী লিখেছেন, ” কলকাতায় ইসলামিয়া হাসপাতালে কোভিড ইউনিটের সূচনা করলেন ফিরহাদ হাকিম। কলকাতায় হিন্দু হাসপাতাল আছে? ঠিকানা জানা থাকলে একটু বলবেন ” জানিয়ে দি, ইসলামিয়া হাসপাতালের ম্যানেজিং কমিটির ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক ভাইরাল হয়েছে। প্রসঙ্গত, India Rag এই ছবির সত্যতা যাচাই করেনি।