Press "Enter" to skip to content

ইসলাম ত্যাগ করছে মুসলিম মেয়েরা, ছেলে-মেয়ের আলাদা স্কুলের দাবি জমিয়ত উলামায়ে হিন্দের

নয়া ঃ মুসলিমদের ধার্মিক সংগঠন জমিয়ত উলামায়ে হিন্দ (Jamiat Ulema-e-Hind) মুসলিম মেয়েদের ইসলাম ছেড়ে দেওয়ার প্রবণতায় ্তা জাহির করেছে। পাশাপাশি মেয়েদের জন্য আলাদা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার দরকার রয়েছে বলে জানিয়েছে। জমিয়ত উলামায়ে হিন্দ জানিয়েছেন, মুসলিম মেয়েদের মধ্যে ইসলাম ছাড়ার প্রবণতা অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। যদিও জমিয়ত উলামায়ে হিন্দ এটা জানায় নি যে, কেন এমন হচ্ছে? কিন্তু তাঁরা এটুকু বোঝাতে চেয়েছে যে, মুসলিম মেয়েরা অন্য ধর্মের ছেলেদের বিয়ে করে নিজের ধর্মত্যাগ করছে।

জমিয়ত নিজের বয়ানে জানিয়েছে, কিছু অমুসলিম ছেলেরা মুসলিম মেয়েদের বিয়ে করছে, আর বাকিদেরও বিয়ে করার জন্য উৎসাহিত করছে। জমিয়ত অনুযায়ী, মুসলিম মেয়েদের জন্য আলাদা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা দরকার, যেখানে তাঁদের ধার্মিক শিক্ষা দেওয়া হবে। সংগঠনের মতে, মুসলিম মেয়েদের মধ্যে ইসলাম নিয়ে বেশি জ্ঞান না থাকার কারণে তাঁরা এভাবে ধর্মত্যাগ করছে।

জমিয়তের তরফ থেকে এই বয়ান সংগঠনের সভাপতি মৌলানা আরশাদ মাদানি দিয়েছেন। উনি অমুসলিম সংস্থাগুলির কাছে মুসলিম মেয়েদের জন্য আলাদা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার কথা বলেছেন। উল্লেখ্য, একদিকে যখন হিন্দু সংগঠনগুলি মুসলিমদের বিরুদ্ধে ‘”-র অভি তুলছে, তখন অন্যদিকে জমিয়ত মুসলিম মেয়েদের ইসলাম ছাড়ার ঘটনা নিয়ে চিন্তা জাহির করছে।

আরশাদ মাদানির এই বয়ানের পর উত্তর প্রদেশে রাজনৈতিক পারদ চড়েছে। রাজ্যের উপ মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, এরা মুসলিমদের তোষামোদ করে চলে। আমাদের এখানে ছেলে আর মেয়ে এক সমান। এরকম মানুষকে জনতা ক্ষমা করবে না।

অন্যদিকে সমাজবাদী পার্টির নেতা সুনীল সাজন বলেছেন, দেশ অনেক এগিয়ে গিয়েছে। মৌলানা আরশাদ মাদানির আর ওনার ধার্মিক সংগঠনের চিন্তা ভাবনাই এমন নীচ। আমাদের মেয়ে আর ছেলেদের আলাদা আলাদা স্কুলে পাঠানোর দরকার নেই। তাঁদের ভালো মতো মানুষ করা আর ভালো সংস্কার দেওয়াই আমাদের কাজ।