Press "Enter" to skip to content

উইঘুরদের উপর চীনের অত্যাচারকে সমর্থন করলেন পাকিস্তানি প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান


নয়া দেশ মধ্যস্থ সংখ্যালঘুদের উপর নির্যাতন থেকে শুরু করে কাশ্মীরবাসিদের উপর জুলুম- ভারত () ের বিরুদ্ধে নানা সময়ে নানা অভিযোগ এনেছে পাকিস্তান (pakistan) প্রধান ইমারন খান (imran khan)। ভারতের কাজে সর্বদা বিরোধীতা করে, কুৎসা রটিয়ে, এবার পাক সরকারের চীনা () উদারতায় বিতর্কের সৃষ্টি হল।

কিছুদিন আগে, এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রী খান বলেন, ‘চীনের জিনজিয়াং প্রদেশে বসবাসকারী মুসলিমদের প্রসঙ্গে চীনা রাষ্ট্রপতি জিনপিং- এর নেওয়া সিদ্ধান্তের সঙ্গে একমত ইসলামাবাদ’। আর পাক সরকারের এমন মন্তব্যের পরই বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে আন্তর্জাতিক মহলে।

বসবাসকারী উইঘুর মুসলিমদের চীনের জিনজিয়াং প্রদেশে প্রায় ২০১৬ সাল থেকেই বন্দি অবস্থায় রাখা হয়েছে। চীন সরকার তাঁদের উপর অত্যাচার চালিয়ে তাঁদের গণহত্যা করছে- এমন খবরও বহুবার প্রকাশে এসেছে। কিছু সেসব বিষয়ে কর্ণপাত না করে, উল্টে চীনকেই সমর্থন করলেন পাক সরকার ইমরান খান। আর অন্যদিকে, কাশ্মীর নিয়ে নানারকম কুৎসা রটনা করেই চলেছে।

চীনের ন্যাশনাল ডে উপলক্ষ্যে বৃহস্পতিবার সংবাদ সংস্থা দি ডন (The Dawn)-এ একটি সাক্ষাৎকার দেন ইমরান খান। সেখানে তিনি চীন প্রেমী মনোভাবের প্রকাশ করে বলেন, ‘পশ্চিমি সংবাদমাধ্যম সংস্থাগুলো কাশ্মীর নিয়ে চুপ করে থাকলেও, চীনে বসবাসকারী উইঘুর মুসলিমদের উপর অত্যাচারের অভিযোগ করে বারবার। চীনা মিডিয়াতে জিনজিয়াং প্রদেশে বসবাসকারী উইঘুর মুসলিমদের প্রসঙ্গে যে রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়, সেই তথ্যের সঙ্গে পশ্চিমি মিডিয়ার দ্বারা প্রকাশিত রিপোর্টের অনেক অমিল থাকে। তবে চীন সরকার উইঘুর মুসলিমদের নিয়ে যা সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তাঁর সঙ্গে আমি সম্পূর্ণ একমত’।