Press "Enter" to skip to content

এবার ‘ভ্যাকসিন” চুরি করার অভিযোগ উঠলো তৃণমূলের বিরুদ্ধে!


কলকাতাঃ করোনার ভ্যাকসিন নিয়ে রাজ্য আর কেন্দ্রের মধ্যে শুরু হয়েছে রাজনীতি। ত্রিপল চোর, চাল চোরের পর এবার মমতা সরকারকে ‘ভ্যাকসিন চোর” বলে কটাক্ষ করলেন বিজেপির মহাসচিব কৈলাস বিজয়বর্গীয়। তিনি রাজ্য সরকারকে আক্রমণ করে বলেন, কেন্দ্র সরকার বিনামূল্যে দেশের ফ্রন্টলাইন করোনা যোদ্ধাদের বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দিচ্ছে। চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী, নার্স, পুলিশরা সবার আগে টিকা পাওয়ার কথা। কিন্তু নিয়ম ভেঙে তৃণমূলের বিধায়করা নিজেই টিকা নিয়ে নিচ্ছেন। এমনকি তৃণমূল নেতারাও টিকা নিচ্ছেন।

উল্লেখ্য, গতকাল তৃণমূলের নেতা বিধায়কেরা টিকা পেলেও খালি হাতে ফিরতে হল ১৫ জন স্বাস্থ্য কর্মীকে। ভ্যাকসিন প্রাপকদের তালিকায় নাম ছিল তাঁদের। কিন্তু তা স্বত্বেও মিলল না ভ্যাকসিন। এর জেরে শনিবার ভ্যাকসিন ছাড়াই ফিরতে হল বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজের নার্সিং স্টাফ অনিতা মজুমদার সহ ১৫ জনকে। অনিতা মজুমদার জানান, ‘গতকাল ভ্যাকসিন দেওয়া নিয়ে আমাদের সাথে যোগাযোগ করা হয়েছিল। কিন্তু আজ হাসপাতালে যেতেই আমাদের বলা হল যে, তালিকায় আমাদের নাম নেই। এরপরের ধাপে আমরা টিকা পাবো।”

১৫ জন স্বাস্থ্য কর্মী টিকা না পাওয়ার পর বর্ধমান জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক প্রণব রায় বলেন, ‘এই বিষয়ে আমি কিছু বলতে পারব না, এই বিষয়ে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজের কর্তৃপক্ষরাই জানেন। আমার জানা নেই। বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ সুহৃতা পাল এই বিষয়ে বলেন,’ অনিতা মজুমদার সহ বাকিদের ডাকা হয়েছিল, কিন্তু তালিকায় নাম না থাকায় আজ তাঁদের টিকা দেওয়া হয়নি। আগামী দফায় ওদের টিকা দেওয়া হবে।”