Press "Enter" to skip to content

এমন পরিস্থিতিতে শপথ নেওয়ার থেকে আক্রান্ত কর্মীদের পাশে দাঁড়ানো বেশি গুরুত্বপূর্ণঃ বিজেপি MLA জগন্নাথ সরকার



শান্তিপুরঃ ির সাংসদ তথা বিধায়ক জগন্নাথ সরকারকে নিয়ে বেশ কয়েকদিন ধরেই জল্পনা চলছে। তিনি সাংসদ পদে বহাল থাকবেন, না বিধায়ক হয়ে রাজ্যে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবেন সেই নিয়েই উঠছে নানান প্রশ্ন। আর এরই মধ্যে তিনি নিজেই সেই জল্পনা আবারও উস্কে দিলেন।

জগন্নাথ সরকারকে এই বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘আমি নিজে এই নিয়ে কোনও সিদ্ধান্ত নিতে পারব না। দলের শীর্ষ নেতৃত্বরা যা ভালো বুঝবেন, সেটাই হবে।” জগন্নাথবাবু বলেন, ‘২ মে রাজ্যের ের ফল ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই চারিদিকে তুমুল অশান্তির সৃষ্টি করেছেন ের কর্মীরা। দিকে দিকে বিজেপির কর্মীদের উপর আক্রমণ করা হচ্ছে। এই মুহূর্তে আমার সবথেকে বড় দায়িত্ব হল বিজেপির কর্মীদের পাশে দাঁড়ানো।”

শান্তিপুরের নবনির্বাচিত বিধায়ক জগন্নাথ বলেন, ‘বাংলায় বর্তমানে যা পরিস্থিতি, সেই অবস্থায় বিধায়ক হিসেবে শপথ নেওয়া লজ্জাজনক। যদি এরকমই চলতে থাকে, তাহলে শপথ নেওয়ার সময় কোথায়? আগে তৃণমূল অত্যাচার বন্ধ করুক, তারপর শপথের কথা ভাবা যাবে। এই অবস্থায় শপথ নেওয়ার থেকে দলীয় কর্মীদের পাশে দাঁড়ানই সবথেকে বেশি গুরুত্বপূর্ণ।”

বিজেপির অন্যান্য বিধায়করা শপথ নিলেও জগন্নাথবাবু এখনও শপথ নেননি। এখন তিনি বাংলার বিধায়ক হবেন, না সাংসদ হয়েই থাকবেন সেটা নিয়ে উঠছে নানান জল্পনা। ওনার সাংসদ পদের মেয়াদ রয়েছে ২০২৪ পর্যন্ত। আর বিধায়ক পদের মেয়াদ এখনও পাঁচ বছর। সেই পরিপেক্ষিতে তিনি জানিয়েছেন, দলের শীর্ষ নেতাদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ীই কাজ করব আমি।