Press "Enter" to skip to content

এসব বরদাস্ত করা হবে না, প্রকাশ্যে নামাজ পড়া নিয়ে কড়া মনোভাব মনোহর লাল খট্টরের

নয়া দিল্লিঃ গুরুগ্রামে (Gurugram) জনসমক্ষে জুম্মার নামাজ পড়া নিয়ে হিন্দু সংগঠনের আপত্তির পর হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রী মনোহর লাল খট্টর (Manohar Lal Khattar) বড় বয়ান দিয়ে বলেছেন প্রকাশ্যে নামাজ পড়লে তা বরদাস্ত করা হবে না।

খট্টর আরও বলেছেন যে, খোলা জায়গায় প্রার্থনার জন্য কিছু জায়গা সংরক্ষিত করার জেলা প্রশাসনের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করা হয়েছে এবং রাজ্য এখন এই সমস্যার একটি সৌহার্দ্যপূর্ণ সমাধান খুঁজে বের করবে। তিনি সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘এখানে (গুরুগ্রাম) খোলা জায়গায় নামাজ পড়ার অভ্যাস বরদাস্ত করা হবে না… তবে আমরা একটি বন্ধুত্বপূর্ণ সমাধান খুঁজে বের করব।”

খট্টর বলেন, “প্রত্যেকেরই প্রার্থনা করার জন্য সুবিধা পাওয়া উচিৎ তবে কারও অন্যের অধিকার লঙ্ঘন করা উচিৎ নয়। এটার অনুমতি দেওয়া হবে না।” খোলা জায়গায় নামাজের জন্য কিছু জায়গা নির্দিষ্ট করার জেলা প্রশাসনের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করে তিনি বলেন, “আমরা পুলিশ এবং জেলা প্রশাসককে সমস্যাটি সমাধান করতে বলেছি।

Manohar Lal Khattar

মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, “ীয় স্থানগুলি এই উদ্দেশ্যে তৈরি করা হয় যে লোকেরা সেখানে গিয়ে যাতে প্রার্থনা করতে পারে। এই ধরনের অনুষ্ঠান খোলামেলা করা উচিত নয়।” খট্টর বলেন, “খোলা জায়গায় নামাজ পড়ার মাধ্যমে সংঘর্ষ এড়ানো উচিত। এমনকি আমরা দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষেরও অনুমতি না।” বলে দিই, গত কয়েক মাসে কিছু হিন্দু সংগঠনের সদস্যরা এমন জায়গায় জড়ো হয়েছে যেখানে মুসলিম সম্প্রদায়ের লোকেরা খোলা জায়গায় প্রার্থনা করে। সেখানে জড় হয়ে তাঁরা “ মাতা”র জয়ের স্লোগান দেয় এবং ‘জয় শ্রী রাম’-এরও স্লোগান দেয়।