Press "Enter" to skip to content

কংগ্রেস প্রবক্তা হতে চাইলে দিতে হবে UPSC এর মতো কঠিন পরীক্ষা, ৪৫ মিনিট ধরে করা হচ্ছে প্ৰশ্ন

[ad_1]

উত্তরপ্রদেশ বিধানসভা নির্বাচন যত সামনে এগিয়ে আসছে ততই রাজনৈতিক দলগুলি নিজেদের সংগঠন মজবুতের দিকে নজর দিচ্ছে। জয়লাভের উদ্যেশ্যে প্রত্যেক পার্টি নিজেদের খামতি পূরণের চেষ্টায় লেগে পড়েছে। ভোটারদের নিজেদের পক্ষে আনার জন্য পদলগুলি লোভনীয় প্রস্তাব দিতে শুরু করেছে। উত্তরপ্রদেশে বহু দশক আগেই নিজেদের জমি হারিয়েছে কংগ্রেস পার্টি।

এখন সেই জমি ফিরিয়ে আনার জন্য এখন কংগ্রেস তাদের সমস্ত শক্তি ঝুঁকে দিয়েছে। সম্প্রতি কংগ্রেস পার্টি প্রবক্তা খোঁজার কাজে নেমেছে। আর পরিপ্রেক্ষিতে তারা যে কাজ শুরু করেছে তা সকলের নজর কেড়েছে। যদি কেউ কংগ্রেস প্রবক্তা হতে চাই তাহলে তাকে কড়া প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হচ্ছে।

জানা গেছে প্রবক্তা হওয়ার দৌড়ে থাকা প্রার্থীদের UPSC পরীক্ষার মতো কড়া প্রশ্নের উত্তর দিতে হচ্ছে। কংগ্রেসের প্রবক্তা হওয়ার জন্য ৪৫ মিনিট ধরে পার্টি সংক্রান্ত প্রশ্ন করা হচ্ছে। এর সাথে সাথে প্রার্থীকে নিজের নাম, মেল আইডি, বাড়ির ঠিকানা ইত্যাদি সাধারণ বিষয় জানাতে হচ্ছে।

পাশাপাশি প্রার্থী সোশ্যাল মিডিয়ায় কি নামে টুইটার হ্যান্ডেল ব্যাবহার করেন, ফেসবুক পেজ, ইউ টিউব চ্যানেল থাকলে সেই সবের নাম, প্ল্যাটফর্মগুলিতে ফলোয়ারের সংখ্যাও জানাতে হচ্ছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় একাউন্টগুলিতে কি ধরনের পোস্ট করা হয় তাও জিজ্ঞাসা করা হচ্ছে প্রার্থীকে। প্রার্থীকে পার্টির বিষয়ে ব্যাপক তথ্য জানতে হবে। এছাড়াও উত্তরপ্রদেশে কংগ্রেসের ভূমিকা, ইতিহাস ইত্যাদি নিয়ে গম্ভীর জ্ঞান থাকার প্রয়োজন রয়েছে। এছাড়াও সাধারণ কিছু প্ৰশ্ন-
১) কংগ্রেস পার্টি উত্তরপ্রদেশের জন্য কি কি করেছে?
২) খবরের কাগজে আজকের ৩ টি প্রমুখ খবর কি?
৩) ভারতের ইতিহাসে কংগ্রেস পার্টির অবদান কি?
৪) RSS এর প্রভাব ভারতের জন্য বিপদজ্জনক কেন?
৫) উত্তরপ্রদেশে কতগুলি বিধানসভা, লোকসভা আসন রয়েছে?
৬) ২০০৪ ও ২০০৯ সালে কংগ্রেস কতগুলি আসন জিতেছিল।
৭) উত্তরপ্রদেশে ব্লক সংখ্যা কয়টি
৮) যোগী আদিত্যনাথের সরকার কোন কোন ইস্যুতে উত্তরপ্রদেশে বিফল হয়েছে?

[ad_2]