Press "Enter" to skip to content

কঙ্গনার অফিস ভাঙার পর, প্রিয়াঙ্কার এই বিলাসবহুল বাড়ি ভাঙার দাবিতে সরব হল নেট দুনিয়া

নয়া দিল্লীঃ শিমলার মেয়ে তথা বলিউড অভিনেত্রী রানাওয়াত () আর মহারাষ্ট্রের শাসক দল শিবসেনার সঞ্জয় রাউতের সাথে চলা বাকযুদ্ধের মধ্যেই কঙ্গনার অফিস ভেঙে দিলো BMC। মঙ্গলবার BMC অবৈধ নির্মাণের নোটিশ পাঠিয়েছিল। এরপর বুধবার সকালে BMC এর টিম কঙ্গনার মুম্বাই পৌঁছানোর আগেই ওনার অফিসে পৌঁছে সেখানে ভাঙচুরের কাজ শুরু করে দেয়।

কঙ্গনার মুম্বাই অফিস ভাঙচুরের বিরুদ্ধে ট্যুইটারে হিমাচল প্রদেশের শিমলায় কংগ্রেসের মহাসচিব প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর () বাড়ি ভাঙার দাবি ওঠে। ট্যুইটারে অনেকেই শিমলায় প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর বাড়ি ভেঙে দেওয়ার দাবি করে। অনেকেই অভিযোগ করে বলেন যে, প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর ওই বাড়ি অবৈধ ভাবে নির্মাণ করা হয়েছে। তাই সেটিকে ভেঙে ফেলা দরকার। অনেকেই আবার হিমাচলের মুখ্যমন্ত্রী জয়রাম ঠাকুরকে ট্যাগ করে প্রিয়াঙ্কার বাড়ি ভাঙার দাবি জানায়।

https://platform.twitter.com/widgets.js

প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর এই বিলাসবহুল বাড়ি সাড়ে চার বিঘা জমির উপর ২০০৮ সালে তৈরি করা হয়েছিল। হিমাচলের কংগ্রেস নেতা কেহর সিং খাচির নামে জমির দলিল আছে। ২০১১ সালে দুই তলা হওয়ার পর ডিজাইন পছন্দ না হওয়ার বাড়ি ভেঙে ফেলা হয়। প্রিয়াঙ্কার এর বাড়ি বানানোর জন্য তৎকালীন করেংস সরকার ল্যান্ড রিফর্ম অ্যাক্টের সেশন ১১৮ এর নিয়মে ছাড় দিয়েছিল। এই সেকশন অনুযায়ী, হিমাচল প্রদেশের বাইরে থাকা মানুষরা হিমাচলে জমি কিনতে পারবেন না। ২০০৭ সালে এই জমির মার্কেট ভ্যালু প্রতি বিঘা এক কোটি টাকা ছিল। আর প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে এই বাড়ির বানানোর জন্য চার বিঘা জমি মাত্র ৪৭ লক্ষ টাকায় দেওয়া হয়েছিল। এই বাড়ি নিয়ে হাইকোর্টও প্রিয়াঙ্কাকে নোটিশ জারি করেছিল।

https://platform.twitter.com/widgets.js

শিমলার ছরাবড়ায় প্রিয়াঙ্কার এই বিলাসবহুল বাড়ি শিমলা থেকে ১৩ কিমি আর সমুদ্রপৃষ্ঠ হেকে ৮ হাজার কিমি উচ্চতায় অবস্থিত। এই বাড়ি পাহাড়ি ধাঁচে বানানো হয়েছে। ঘরের ভিতরে কাঠের সমস্ত আসবাবপত্র সাজানো হয়েছে। বাড়ির চারিদিকে সবুজ পাইনের গাছ। সামনে বরফে ঢাকা হিমালয় আছে।

The post কঙ্গনার অফিস ভাঙার পর, প্রিয়াঙ্কার এই বিলাসবহুল বাড়ি ভাঙার দাবিতে সরব হল নেট দুনিয়া first appeared on India Rag.