Press "Enter" to skip to content

কন্ডোমের বদলে যৌনাঙ্গে ফেভিকুইক লাগিয়ে উদ্যাম যৌনতা, সবশেষে প্রাণ হারাল সলমন

আহমেদাবাদঃ গুজরাটের আহমেদাবাদের এক যুবকের রহস্যময় ভাবে মৃত্যু হয়েছে। সলমন মিরজা নামের ওই যুবক আহমেদাবাদের জুহাপুরার বাসিন্দা। Epoxy Adhesive সহজ সরল ভাষায় আঠা তাঁর মৃত্যুর কারণ বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। সেক্স করার সময় যৌনাঙ্গের সুরক্ষার জন্য সে Fevikwik-র ব্যবহার করেছিল বলে জানা যাচ্ছে।

‘দেশ গুজরাট”-র অনুযায়ী, পুলিশের প্রাথমিক তদন্তে আঠা তত্ত্ব উঠে এসেছে। জানা গিয়েছে যে সলমনকে কয়েকদিন আগে অটো রিকশা করে একটি হোটেলে যেতে দেখা গিয়েছিল। সে সময় তাঁর সঙ্গে তাঁর প্রাক্তন প্রেমিকা আর একজন মহিলা ছিল বলে জানা গিয়েছে। এও জানা গিয়েছে যে, সলমনের প্রাক্তন প্রেমিকা মাদকাসক্ত। পুলিশের অনুমান, দুজনে সহবাসের আগে ড্রাগস নিয়ে এই কাণ্ড ঘটিয়েছে।

https://platform.twitter.com/widgets.js

তাঁদের কাছে প্রোটেকশন হিসেবে কন্ডোম ছিল না। আর এই কারণে প্রাক্তন প্রেমিকাকে গর্ভবতী হওয়ার থেকে বাঁচাতে সলমন নিজের যৌনাঙ্গে Fevikwik-র ব্যবহার করে। যদিও, সলমনের পরিবার এর জন্য তাঁর প্রাক্তন প্রেমিকাকেই দায়ী করেছে। তাঁদের দাবি, তাঁর প্রাক্তন প্রেমিকাই সলমনের যৌনাঙ্গে আঠা লাগিয়ে দিয়েছিল। পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে।

২৩ জুন সলোমনকে অচৈতন্য অবস্থায় উদ্ধার করে তাঁরই এক বন্ধু। এরপর তাঁকে বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয় আর সেখান থেকে তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। চিকিৎসা চলাকালীন সলমনের মৃত্যু হয়।