Press "Enter" to skip to content

করোনায় মরলে বিনামূল্যে কফন দেবে ঝাড়খণ্ড সরকার, ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেনের

রাঁচিঃ করোনা মহামারীর ভয়ঙ্কর প্রকোপের কারণে স্্থ্য ব্যবস্থা নিয়ে অর্থনীতির অবস্থা বেহাল হয়ে পড়েছে। প্রাথমিক সুবিধার জন্যও সাধারণ মানুষ হা-হুতাশ করছে। কেউ এটা ভাবতে পারেনি যে, তাঁদের পরিবারের কেউ মারা গেলে শ্মশানে জায়গা মিলবে না। যদিও কেন্দ্র এবং রাজ্য সরকার মানুষের দুর্ভোগ কমানোর জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করে চলেছে।

আর এরই মধ্যে করোনায় বেড়ে চলা মৃত্যুর সংখ্যা দেশে ঝাড়খণ্ডের হেমন্ত সোরেন সরকার শেষকৃত্যের জন্য বিনামূল্যে ‘কফন” (সাদা কাপড়) দেওয়ার ঘোষণা করেছে। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন নিজে এই ঘোষণা করেছেন। আর এই নিয়ে রাজ্যে এখন রাজনৈতিক পারদ চড়েছে। তরফ থেকে হেমন্ত সরকারের এই বিনামূল্যে কফন দেওয়ার ঘোষণাকে কটাক্ষ করা হয়েছে।

https://platform.twitter.com/widgets.js

বিজেপির নেতা দীপক প্রকাশ টুইট করে লেখেন, ‘আজব পরস্থিতিতে আছি, একদিকে কেন্দ্র সরকার যখন মানুষের প্রাণ বাঁচানোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে, তখন আরেকদিকে ঝাড়খণ্ডের জট সরকার জনতাকে বিনামূল্যে কফন বিতরণ করছে।”

বিজেপি নেতার টুইটের পর রাজ্যে ক্ষমতাসীন দল ঝাড়খণ্ড মুক্তি মোর্চার (JMM) তরফ থেকে পাল্টা আক্রমণ করা হয়। JMM একটি টুইটে বলেন, ‘হেমন্ত সরকার বিনামূল্যে ভ্যাকসিনও দিচ্ছে। কিন্তু ঘৃণ্য রাজনীতির কারণে আপনি শুধু কফনটাকেই দেখতে পারছেন।”

JMM উত্তর প্রদেশ নিয়ে কটাক্ষ করে বলে, ‘উত্তর প্রদেশের গঙ্গায় ভেসে যাচ্ছে গরিবের লাশ। বালিতে চাপা পড়ছে গরিবের লাশ, -শকুন খাচ্ছে গরিবের লাশ। আপনার হয়ত সেই ছবিগুলো বেশি ভালো লাগে। আর এই কারণে এখানে মৃত্যুর পর কফন বিলি করাটাকে আপনি ভালো চোখে দেখছেন না। আপনার ক্ষমতায় থাকলে কফনের ব্যবসাও কোনও শিল্পপতির হাতে বিক্রি করে দেবেন।”

https://platform.twitter.com/widgets.js