Press "Enter" to skip to content

কর্নেল সহ অসম রাইফেলসের জওয়ানদের মৃত্যুর বদলা নিতে তৈরি সেনা, শুরু হল অভিযান

ইম্ফলঃমণিপুরের বীরেন সিং রবিবার জানিয়েছেন, সীমান্তে যেখানে অসম রাইফেলসের জওয়ান আর তাঁদের পরিবারের সদস্যের উপর জঙ্গিরা লুকিয়ে থেকে হামলা করেছিল, সেখানকার নিরাপত্তা আরও আঁটসাঁট করা হবে। ইম্ফল বিমান বন্দরে অসম রাইফেলসের এক কর্নেল, ওনার স্ত্রী, সন্তান সহ চার জওয়ানের নিথর দেহে পুষ্পাঞ্জলি অর্পণ করার পর মুখ্যমন্ত্রী এও বলেন যে, স্বরাষ্ট্রবিভাগ আর আধাসামরিক বাহিনীকে জঙ্গিদের বিরুদ্ধে অভিযান চালানোর অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

আধিকারিকরা জানিয়েছেন, আধাসামরিক বাহিনী, অসম রাইফেলস আর রাজ্য পুলিশ মিলে সংযুক্ত অভিযান লঞ্চ করে আশেপাশের জঙ্গলে ব্যাপক তল্লাশি অভিযান চালাবে। বলে দি, শনিবার মণিপুরের হামলার দায় স্বীকার করেছে দুটি সংগঠন। একটি হল পিপলস লিবারেশন আর্মি, আর একটি মণিপুর নাগা পিপলস ফ্রন্ট।

চার জওয়ান, কর্নেল এবং তাঁর পরিবারকে শেষ বিদায় জানানোর পর মণিপুরের মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সরকার রাজ্যে এমন জঙ্গি গতিবিধি বরদাস্ত করবে না।” উনি বলেন, আগামী দিনে এমন যেন কিছু না হয় আর, সেই কারণে সীমান্তে নজরদারি এবং নিরাপত্তা আরও বাড়ানো হবে।

উল্লেখ্য, শনিবার সকালে মণিপুরে হওয়া IED বিস্ফোরণ এবং জঙ্গিদের এলোপাথাড়ি গুলিতে অসম রাইফেলসের কর্নেল ত্রিপাঠি, ওনার স্ত্রী অনুজা আর ওনার ছেলে আবীরের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়াও দেশের সবথেকে পুরনো আধাসামরিক বাহিনী অসম রাইফেলসের চার জওয়ানও নিহত হয়েছেন। যাদের মধ্যে একজন এই বাংলার মুর্শিদাবাদের জওয়ান শ্যামল দাস ছিলেন। এই কাপুরুষোচিত হামলার পর মণিপুর সরকার এবং সেনা কড়া পদক্ষেপ নিয়ে জঙ্গি দমনের উদ্দেশ্যে অভিযান শুরু করেছে।