Press "Enter" to skip to content

কামারহাটিতে ২০ হাজার মানুষ নিয়ে জয়ের উৎসব করার ঘোষণা মদন মিত্রের, সারাদিন হবে নাচ-গান হইহুল্লোর


 করোনার দ্বিতীয় ঢেউ কিছুটা সামনে উঠেছে ভারত ()। বাংলাতেও (West Bengal) অনেক কমেছে করোনার প্রভাব দৈনিক সংক্রমণ ৮ হাজারের নিচে নেমেছে। মৃত্যুর সংখ্যাও হ্রাস পেয়েছে। বিগত ২০-২১ দিন ধরে বাংলায় বিধিনিষেধ পর্ব চলছে। স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী (Mamata Banerjee) করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে এই বিধিনিষেধ জারি করেছেন। আর এরই মধ্যে কামারহাটির তৃণমূল (Trinamool) বিধায়ক মন্দন মিত্রর (Madan Mitra) ফেসবুক লাইভ (Facebook Live) নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে।

কামারহাটির বিধায়ক তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ধমক খাওয়ার পরেও আবারও ফেসবুকে লাইভে এমন এক কথা বলেছেন, যা নিয়ে সংশয় তৈরি হয়েছে। মদন মিত্র ফেসবুকে লাইভে জানিয়েছেন যে, তিনি খুব শিগগিরই কামারহাটির জয় নিয়ে বিজয় উৎসব পালন করতে চলেছেন। এই বিজয় উৎসবে বিপুল সমাগমের ইঙ্গিত দিয়েছেন খোদ মদন মিত্র।

কামারহাটির তৃণমূল বিধায়ক জানিয়েছেন যে, আগামী ৩০ জুন তিনি বিজয় উৎসব পালন করবেন। সেখানে নাচ-গান চলবে আর ২০ হাজার মানুষ উপস্থিত থাকবেন। মদনবাবু এই বিজয় উৎসবকে ‘মিলন উৎসব” বলে আখ্যা দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ‘আমরা জিতেছি, এবার বিজয় উৎসব হবে। কমপক্ষে ২০ হাজার মানুষ সারা দিনরাত নাচ-গান করবেন, হইহুল্লোর হবে। এখানকার একটি মাঠে এই আয়োজন করা হবে। মদনবাবু এও বলেছেন যে, ‘আগামী ৩০ জুন কামারহাটির একজনও বাড়িতে থাকবেন না।”

উল্লেখ্য, রাজ্যের করোনার বর্ধিত গ্রাফ দেখে প্রথমে ১৫ দিনের লকডাউন ঘোষণা করেছিল নবান্ন। এরপর লকডাউনের প্রথম পর্ব শেষ হতে না হতেই, নয়া বিধিনিষেধ ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আগামী ১৫ জুন পর্যন্ত গোটা রাজ্যে এই বিধিনিষেধ লাগু থাকবে। তবে প্রথম পর্বের নিষেধাজ্ঞার থেকে দ্বিতীয় পর্বে কিছুটা ছাড় দেওয়া হয়েছে। আর তৃতীয় পর্বে আরও কিছু বিধিনিষেধ জারি হবে কি না, সেটা আগামী কয়েকদিনের মধ্যেই জানা যাবে। তবে তাঁর আগেই করোনার ভ্রূকুটি উড়িয়ে মদন মিত্রের এই ঘোষণা অনেকেরই দৃষ্টিকটূ লাগছে। এখন দেখা যাক, মদন মিত্রের এই ঘোষণা আদৌ কার্যকারী হয় কি না, নাকি তাঁর আগেই মুখ্যমন্ত্রী আবার ধমক দেন।