Press "Enter" to skip to content

কার্যত ফাঁকা সভা থেকেই বিজেপিকে বাংলা থেকে ছুঁড়ে ফেলার চ্যালেঞ্জ অভিষেকের



খণ্ডঘোষঃ আজ নির্বাচনী প্রচারে পূর্ব বর্ধমানের খণ্ডঘোষে একটি জনসভা করেন তৃণমূলের যুব নেতা তথা ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখান থেকে তিনি কেন্দ্রের মোদী সরকার এবং বিজেপিকে একের পর এক ইস্যু তুলে তুলোধোনা করেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে আক্রমণ করে অভিষেক বলেন, ‘ভারতের জনসংখ্যা ১৩৮ কোটি। কিন্তু ভারতের জন্য বরাদ্দ মাত্র এক কোটি ভ্যাকসিন। মোদী করোনার ১০ কোটি ভ্যাকসিন বিদেশে পাঠিয়েছেন। মোদী দেশের মানুষের কথা ভাবেন না।”

মঙ্গলবার পূর্ব বর্ধমানের তিন যায়গায় জনসভা করেন তৃণমূলের যুব নেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সর্বপ্রথম খণ্ডঘোষ, তারপর রায়না এবং শেষে পূর্বস্থলী। কিন্তু অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের খণ্ডঘোষের সভা কার্যত ফাঁকাই দেখা যায়। যদিও তৃণমূলের যুব সাংসদ এই বিষয়টিকে পাত্তা না দিয়ে নিজের বক্তব্য তুলে ধরেন। ফাঁকা মাঠ থেকেই তিনি বিজেপিকে একের পর এক ইস্যু নিয়ে তুলোধোনা করেন।

নরেন্দ্র মোদীর সমালোচনা করে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘উনি দেশের মানুষের কথা ভাবেন না বলেই বিদেশে করোনার ১০ কোটি ভ্যাকসিন পাঠিয়ে দিয়েছে। আর ১৩৮ কোটি ভারতীয়র জন্য রেখেছে মাত্র ১ কোটি ভ্যাকসিন।” অভিষেক এদিন বিজেপির সাংসদ তথা বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকেও একহাতে নেন। তিনি শীতলকুচি নিয়ে দিলীপ ঘোষের মন্তব্যের তুমুল সমালোচনা করেন।

আজ পূর্ব বর্ধমানের একাধিক সভা থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নের খতিয়ানও তুলে ধরেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি পূর্ব বর্ধমানের মানুষকে বিজেপিকে একটিও আসন না দেওয়ার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, নরেন্দ্র মোদী বাংলার মানুষের জন্য কি করেছেন একটু বলে শোনাক। আমিও শোনাব মমতা ব্যানার্জী বাংলার মানুষের জন্য কি কি করেছেন।

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এক একজন নারী হয়ে লড়াই করে জাচ্ছেন, আরেকদিকে ওই একা একজন নারীর সঙ্গে লড়াই করতে সবার নাড়ি-ভুঁড়ি বেরিয়ে যাচ্ছে।