Press "Enter" to skip to content

কালীচরণ মহারাজের গ্রেফতারিতে লক্ষ লক্ষ মানুষের মনে ক্ষোভ, দিয়ে দিল হুমকিও

[ad_1]

নয়া দিল্লিঃ সম্প্রতিয়ে ছত্তিগড়ের রায়পুরে ধর্ম সংসদে মহত্মা গান্ধীকে নিয়ে বিতর্কিত বয়ান দেওয়া হয়েছে। সেই বিতর্কিত বয়ান দিয়েছিলেন সন্ত কালীচরণ মহারাজ। বিতর্কিত বয়ানের জেরে তাঁকে গ্রেফতারও করা হয়। এখন তাঁকে গ্রেফতারের বিষয় নিয়ে অনেকেই বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন। বৃহস্পতিবার সকালে রাইপুর পুলিশ কালীচরণকে মধ্যপ্রদেশের ছতরপুর জেলার বাগেশ্বর ধামের কাছ থেকে গ্রেফতার করে। সেখানে একটি ছোট গেস্ট হাউসে অবস্থান ছিলেন সন্ত কালীচরণ। দুপুর ২টো নাগাদ সেখানে অভিযান চালিয়ে তাকে হেফাজতে নেয় রায়পুর পুলিশ।

সন্ত কালীচরণকে আটক করার খবর ছড়িয়ে পড়তেই চারিদিকে বিক্ষোভের আগুন জ্বলতে থাকে। একদিকে মধ্যপ্রদেশের সরকার এই ঘটনার বিরোধিতা করে, অন্যদিকে দেশের বিভিন্ন প্রান্তের সাধু-সন্ন্যাসী এবং হিন্দুত্ববাদীরাও কালীচরণের গ্রেফতারের বিরোধিতা করে আসরে নামে। সোশ্যাল মিডিয়াতেও কালীচরণের গ্রেফতারির প্রতিবাদে অভিযান চলছে। ট্যুইটারে #ReleaseKalicharanMaharaj লিখে ট্রেন্ড করানো হচ্ছে।

কালীচরণ মহারাজ-কে তাঁর বক্তব্যের জন্য ক্ষমা চাইতে বলা হয়েছিল, কিন্তু তিনি তার বক্তব্যে অটল রয়েছেন, তিনি বলেছেন যে, আমি কোন অন্যায় করিনি, আমি সত্য এবং হিন্দু স্বার্থ প্রকাশ করেছি, এই কাজ করার জন্য আমার কোন অনুশোচনা নেই। জাতি ও ধর্মের স্বার্থে যা সঠিক বলে মনে করেছি এবং তার জন্য ক্ষমা চাইব না। অন্যদিকে, কালীচরণ মহারাজের অনুগামীরা হুমকির সুরে বলেছে যে, ওনাকে শীঘ্রই ছাড়া না হলে তাঁরা দেশব্যাপী আন্দোলনে নামবে।

https://platform.twitter.com/widgets.js

বলে দিই, ছত্তিসগড়ের রাজধানী রাইপুরে আয়োজিত ধর্ম সংসদে কালীচরণ মহারাজ মহত্মা গান্ধীকে নিয়ে বিতর্কিত বয়ান দিয়েছিলেন। পাশাপাশি তিনি মহত্মা গান্ধীকে হত্যা করার জন্য নাথুরাম গডসেরও প্রশংসা করেছিলেন। এরপর থেকেই বিভিন্ন মহল থেকে ওনাকে গ্রেফতার করার দাবি উঠছিল। অবশেষে বৃহস্পতিবার তাঁকে মধ্যপ্রদেশ থেকে গ্রেফতার করে রাইপুর পুলিশ।

[ad_2]