Press "Enter" to skip to content

কিং খানের বিরুদ্ধে কথা বলা! সাংবাদিককে গ্রেফতারের দাবি তুলল শাহরুখ খানের ভক্তরা

গত এক সপ্তাহ ধরে, সুদর্শন টিভির মুখ্য এডিটর সুরেশ চৌভানকে এবং বলিউড অভিনেতা শাহরুখ খানের ভক্তদের মধ্যে অনলাইন প্লাটফর্ম টুইটারে লাগাতার দ্বন্দ চলছে। বিষয়টি এত বড়ো রূপ নিয়েছে যে শাহরুখ খানের অনেল ভক্ত সুরেশ চৌহানকে গ্রেফতারের দাবি তুলেছে। শাহরুখ খানকে বদনাম করছেন সুরেশ চৌহান, এই অভি তুলে শাহরুখ খানের ভক্তরা সুদর্শন টিভির মুখ্য এডিটরের গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছেন।

ঘটনার সূত্রপাত হয়, যখন চৌভানকে হিন্দি দিবসে একটি টুইট করেছিলেন যেখানে তিনি বলেছিলেন যে হিন্দি ভাষায় উর্দু শব্দের অনুপ্রবেশ জাতীয় ভাষা হত্যার একটি প্রচেষ্টা এবং এটি বন্ধ করা উচিত। তিনি বলেছিলেন, যে তার চ্যানেল ৫০০ টিরও বেশি উর্দু শব্দ ব্যবহার বন্ধ করে দিয়েছে যা প্রচারের সময় ব্যবহৃত হতো। এটিকে “ভাষা জিহাদ” বলে অভিহিত করে, চৌভানকে বলিউড অভিনেতা শাহরুখ খান এবং লেখক জাভেদ আখতার সহ সার্চ ইঞ্জিন গুগলের উপর ইচ্ছাকৃতভাবে উর্দু চাপিয়ে দেওয়ার অভিযোগ তুলেছিলেন।

https://platform.twitter.com/widgets.js

 

টুইটের পর, শাহরুখ খানের ফ্যান ফলোয়াররা তাদের অ্যাকাউন্ট থেকে চৌভানকের বিরুদ্ধে টুইট করা শুরু  করে এবং তাকে গ্রেপ্তারের দাবি জানায়। এই পরিপ্রেক্ষিতে চৌভানকে লিখেছেন, শাহরুখ খান এবং জাভেদ আখতারের ভক্তরা আমার গ্রেফতারের দাবি করেছে কারণ আমি হিন্দিতে উর্দু চাপানোর ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে আমার আওয়াজ তুলেছিলাম। কিন্তু আমি হিন্দি-হিন্দু-হিন্দুস্তানের জন্য আওয়াজ তুলতে থাকব। আপনারা যা পারেন করুন।

https://platform.twitter.com/widgets.js

ততক্ষণে চৌভানকে ও শাহরুখ খানের ফলোয়ারদের মধ্যে টুইটযুদ্ধ শুরু হয়ে গিয়েছে। চৌভানকে অভিযোগ করেছেন, বেশিরভাগ ফেক প্রোফাইল। তথাকথিত ভক্ত এবং দেশপ্রেমিকের মধ্যে এটি পার্থক্য। তিনি #BoycottShahRukhKhan হ্যাশট্যাগ চালু

https://platform.twitter.com/widgets.js

চৌভানকে বলেছেন, যদি নিয়ে কোনো ছবি অনুমোদিত হয়, তাহলে পরবর্তীকালে তারা আওরঙ্গজেবের ওপর সিনেমা বানাবে, যা গ্রহণযোগ্য নয়। তিনি প্রশ্ন করেছেন, কেন শাহরুখ খান ইন্ডিয়ান প্রিমিয়াম লিগে পাকিস্তানি খেলোয়াড়দের চেয়েছিলেন। তিনি আরও বলেছেন, যে এসআরকে মনে করে যে ভারতীয়দের তার দলে খেলার প্রতিভা নেই। উল্লেখ্য, ২০১০ সালে যখন পাকিস্তানি খেলোয়াড়দের আইপিএল থেকে বাদ দেওয়া হয়েছিল, এসআরকে এই সিদ্ধান্তে আপত্তি করেছিলেন।