Press "Enter" to skip to content

কিভাবে ফ্রান্সের রাষ্ট্রপতির গলা কাটতে হবে- পাকিস্তানের মাদ্রাসায় শেখাচ্ছেন শিক্ষিকা! ভাইরাল হল ভিডিও


বিশ্বের প্রায় প্রতিটি জাতি নিজেদের ছেলে মেয়েকে সভ্য, উদারতা, অহিংসার শিক্ষা দেওয়ার চেষ্টা করে। তবে পাকিস্তান একবারে এসবের ব্যাতিক্রম। পাকিস্তানের মতো দেশে ছোটো বেলা থেকে মনের মধ্যে ঢুকিয়ে দেওয়া হয় ঘৃণা, হিংসার বিষ। বাচ্চা বয়সে শিখিয়ে দেওয়া হয় জেহাদের নামে উপদ্রব, মার কাট করা। সম্প্রতি ে হওয়া ঘটনা পুরো বিশ্বকে আন্দোলিত করে তুলেছে।

ফ্রান্স দেশে এক শিক্ষকের মাথা কেটে নেওয়া হয়েছে। শিক্ষকের ছিল যে উনি নবী মহম্ের কার্টুন দেখিয়েছিলেন। শিক্ষকের হত্যার পর চার্চে ঢুকে এক ী আল্লাহ হু আকবর শ্লোগান দিয়ে ৩” জনকে গলা কেটে হত্যা করে। ফ্রান্সের ঘটনা নিয়ে পাকিস্তান, তুর্কীর মতো দেশ সন্ত্রাসবাদের বিরোধিতা না করে উল্টে ফ্রান্সকে বয়কটের ডাক দিয়েছে।

পাকিস্তান, থেকে নানা ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হচ্ছে যেখানে সেখানে নাগরিকদের বিক্ষোভ প্রদর্শন করতে দেখা যাচ্ছে। এর মধ্যে পাকিস্তান থেকে একটা ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। যা সভ্য সমাজকে হতবাক করেছে। ফ্রান্সের বিরোধিতা করে এই ভিডিওটি তৈরি করা হয়েছে।

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে প্রথমে ইসলামিক নিয়ম মেনে প্রেয়ার করা হচ্ছে। এরপর ছাত্রীদের শেখানো হচ্ছে কিভাবে ফ্রান্সের রাষ্ট্রপতির গলা কাটতে হবে। ভিডিওতে যিনি এইসব শেখাচ্ছেন তিনিও একজন মহিলা। বলা হচ্ছে এক মাদ্রাসায় শিক্ষা প্রদানের সময় ফ্রান্সের বিরুদ্ধে বিরোধ প্রদর্শনের নামে এমন কান্ড করা হয়েছে।