Press "Enter" to skip to content

খাস কলকাতায় প্রতারণার শিকার হিন্দু ব্যক্তি, মুরগীর বদলে গরুর মাংস ডেলিভারি করল Zomato


 বিভিন্ন শপিং মল বা রেস্তোরাঁয় প্রক্রিয়াজাত প্যাকেট করা মাংসের গায়ে অনেক সময়ে লেখা থাকে ‘হালাল’। বড় বড় শহরে রেস্তোরাঁর বাইরেও লেখা থাকে ‘এখানে হালাল মাংস পাওয়া যায়’।

ইসলাম ধর্মে হালাল মাংস খাওয়া আইনসম্মত। হারাম মাংস খাওয়া সে ধর্মে পাপ বলে গণ্য হয়। ইসলামী আইন অনুযায়ী হালাল কথার অর্থ হল যা আইনসম্মত, বৈধ, উপকারী ও কল্যাণকর যা আল্লাহ বিধান দিয়েছেন। আর হালালের উল্টোদিকেই সেখানে রাখা হয় হারামকে—হারাম কথার অর্থ হল নিষিদ্ধ বা যা আইনসম্মত নয়, অপবিত্র। ইসলাম ধর্ম অনুযায়ী যে মাংস ‘বিশুদ্ধ’ নয়, তাকেও হারাম মাংস বলে।

হালাল মাংসের ক্ষেত্রে পশুটিকে জবাই করার একটা নির্দিষ্ট পদ্ধতি আছে, যা অনুসরণ করলে সেই পশুর মাংসকে আমরা হালাল মাংস বলতে পারি। এই পদ্ধতিতে ধারালো ছুরি দিয়ে পশুটির গলার কাছে গভীর করে কাটতে হবে, যাতে তার ক্যারোটিড ধমনী, ট্র্যাকিয়া ও জুগুলার শিরা কেটে যায় এবং তার মাথাটি জবাই করার সময় কাবার দিকে ফেরানো থাকে। জবাই করার সময় ‘বিসমিল্লাহর নাম নিয়ে পশুটিকে জবাই করতে হবে।

কিন্তু খোদ কলকাতার বুকে হালাল মাংসের জন্য প্রতারণার শিকার এক ব্যক্তি। জয় খান্না নামের এক ব্যক্তি ফেসবুক পোস্ট করে জানিয়েছেন, তিনি এক প্লেট চিকেন স্ট্যু ও দুটো পরোটা জোম্যাটো থেকে অর্ডার করেছিলেন কিন্তু তার বদলে তার কাছে এক প্লেট গোরুর মাংস ও দুটো পরোটা ডেলিভারি দেওয়া হয়েছে। তিনি কিছুটা খাওয়ার পর বুঝতে পারেন হাড়গুলো মুরগীর মতো নয়।.

তিনি জোম্যাটো কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি জানালে তারা শুধুমাত্র সরি বলে বিষয়টি এড়িয়ে গেছেন এবং আশ্বাস দিয়েছেন পরবর্তী অর্ডারের সময় ৭৫ টাকা ছাড় দেওয়া হবে। কিন্তু আশানুরূপ উত্তর না পেয়ে তিনি সন্তুষ্ট নন এবং স্থানীয় থানায় এ বিষয়ে অভিযোগ করতে চান বলে সোশ্যাল মিডিয়ায় জানিয়েছেন।

তিনি বলেছেন, এই পুরো ঘটনাটি ফেসবুকে পোস্ট করার একটাই উদ্দেশ্য ভবিষ্যতে যেন কেউ এরকম প্রতারণার শিকার না হয়। কারণ গরুর মাংস খাইয়ে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করার নিম্ন উদ্দেশ্য যেন কর্তৃপক্ষের না থাকে।

কিন্তু এই ঘটনায় নেট দুনিয়ার একাংশ খেপে উঠেছে। তারা বারবার অভিযোগ করতে শুরু করেছে ইচ্ছাকৃতভাবে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করার জন্য গরুর মাংস ডেলিভারি দেওয়া হয়েছে। গোপনে হিন্দুদের ধোকা দেওয়ার জন্য এই কাজ করা হয়েছে এবং এরজন্য কর্তৃপক্ষের উপযুক্ত ব্যবস্থা হ‌ওয়া দরকার।