Press "Enter" to skip to content

গোরক্ষনাথ মন্দিরের পাশে থাকা মুসলিমদের উচ্ছেদ করতে তৎপর যোগী সরকার, জারি হল নির্দেশ

গোরক্ষপুরঃউত্তর প্রদেশের (Uttar Pradesh) ী আদিত্যনাথের () সঙ্গে যাতে কোনও দুর্ঘটনা না হয়, সেই কারণে গোরক্ষপুরের (Gorakhpur) গোরক্ষনাথ মন্দিরের (Gorakhnath Math) দক্ষিণ-পূর্বে অবস্থিত ১১টি বাড়ি খালি করানো হবে। শোনা যাচ্ছে যে, ওই ১১টি বাড়িই মুসলিমদের। প্রশাসন নজর রাখছে যে, কোনও কুণ্ঠিত মানসিকতার মানুষ যেন এই ঘটনা নিয়ে সাম্প্রদায়িক উন্মাদ না ছড়ায়। উত্তর প্রদেশ প্রশাসন স্পষ্ট করেছে যে, সর্বসম্মতিতেই তাঁদের বাড়ি খালি করানো হচ্ছে। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, ১১ জনের মধ্যে ৯ জন মালিক সহমতি পত্রে স্বাক্ষর করেছে।

আরও কড়া হবে মুখ্যমন্ত্রী যোগীর সুরক্ষা ব্যবস্থা
মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী, মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ ইতিমধ্যে অনেক হুমকি পেয়েছেন। আর সেই কারণে কেন্দ্র আর রাজ্যের সুরক্ষা এজেন্সিগুলো মিলে মুখ্যমন্ত্রী যোগীর সুরক্ষা সুনিশ্চিত করতে রিপোর্ট তৈরি করেছে। ওই রিপোর্টে বলা হয়েছে যে, গোরক্ষনাথ মন্দিরের প্রধান গেটের পাশে থাকে ন্যাশালান ব্যাঙ্কটিকেও মন্দির চত্বরের মধ্যে যুক্ত করে প্রধান ফটকের সুরক্ষা আরও বাড়ানোর বন্দোবস্ত করা হতে পারে। রিপোর্টে মন্দিরের দক্ষিণ-পূর্ব দিকে সুরক্ষার আরও কড়া করার কথা বলা হয়েছে।

সবকিছু শান্তিতেই হবেঃ জেলা শাসক
গোরক্ষপুরের জেলা শাসক বিজয়েন্দ্র পান্ডিয়ান মিডিয়াকে জানিয়েছেন যে, ‘সরকারের নির্দেশে মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের সুরক্ষা সুনিশ্চিত করার জন্য মন্দির চত্বরে থাকা ১১টি বাড়ি খালি করা হবে। বাড়িগুলোকে খালি করার জন্য প্রস্তুতি নেওয়া শুরু হয়ে গিয়েছে। সর্বসম্মতিতে বাড়ি গুলোকে খালি করা হবে এবং ন্যায্য ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে।” তিনি জানান, ‘সহমতিপত্রে এখনও পর্যন্ত ৯ জন স্বাক্ষর করেছেন। সবকিছুই শান্তিপূর্বক হবে। এই বিষয়টিকে ধার্মিক রঙ দিতে চাওয়া মানুষের উপর কড়া নজর রাখা হবে।” তবে ের ফরমানের পর বিরোধীরা এই ইস্যুতে সক্রিয় হয়েছে।