Press "Enter" to skip to content

চক্রান্ত মাফিক ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ বন্ধ করেছিল কেন্দ্র! বেফাঁস মন্তব্য করে ট্রোলড কংগ্রেস নেতা

[ad_1]

নয়া দিল্লিঃ আচমকাই সোমবার রাত ৯টার পর থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় নেটওয়ার্ক ফেসবুক-হোয়াটসঅ্যাপ-ইনস্টাগ্রামের (Facebook, Whatsapp, Instagram) পরিষেবা বন্ধ হয়ে যায়। প্রায় ৬ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর ফের কাজ করা শুরু করে এই সোশ্যাল সাইটগুলি। আচমকাই এমন ভাবে বন্ধ হয়ে যাওয়ায় কারণে ব্যাপক ক্ষতির মুখে পড়তে হয় মার্ক জুকারবার্গকে।

পাশাপাশি এই সোশ্যাল মিডিয়া নেটওয়ার্ক ব্যবহারকারীরাও চরম সমস্যায় মধ্যে পড়েন। তবে বর্তমানে সবকিছু ঠিক। মার্ক জুকারবার্গ এই অনিচ্ছাকৃত পরিষেবা বন্ধ হয়ে যাওয়ার কারণে সবার কাছে ক্ষমাও চেয়ে নিয়েছেন। মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী, প্রায় ৬০০ কোটি মার্কিন ডলার ক্ষতি হয়েছে জুকারবার্গের। যা ভারতীয় মুদ্রায় ৪৫ হাজার কোটি টাকার আশেপাশে।

তবে, গতকালের এই সার্ভার ডাউনের সমস্যা নিয়ে আজব বয়ান দিয়েছেন কংগ্রেস নেতা উদিত রাজ (Udit Raj)। তিনি বলেছেন, সরকার বিরোধী, কৃষক আর প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর কণ্ঠরোধ করার জন্য ফেসবুক-হোয়াটসঅ্যাপ-ইনস্টাগ্রাম ভারতে ব্লক করে দিয়েছিল। ওনার এই মন্তব্যের পর সোশ্যাল মিডিয়ায় ওনাকে নিয়ে হাসির রোল শুরু হয়েছে।

উল্লেখ্য, উত্তর প্রদেশের লখিমপুরে কৃষকদের প্রতিবাদ চলাকালীন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর ছেলে গাড়ির তলায় চাপা পড়ে প্রাণ হারান দুজন কৃষক। এই ঘটনা নিয়ে এখন গোটা দেশের রাজনীতি উত্তাল। আর এই ঘটনার বিষয়ে প্রতিবাদ দেখাতে কংগ্রেসের মহাসচিব যখন লখিমপুরে যান, তখন ওনাকে আটক করে উত্তর প্রদেশ পুলিশ।

এই ঘটনার পর গোটা এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়ায়। কৃষকদের ক্ষোভ আরও বেড়ে যায়। যদিও, ড্যামেজ কন্ট্রোলে উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ মৃত কৃষকদের পরিবারকে ৪৫ লক্ষ টাকা নগদ ও সরকারি চাকরি দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। কিন্তু এতেও এই বিষয়ে রাজনীতি যে থামবে না, সেটা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। তবে এই ঘটনার সঙ্গে  ফেসবুক-হোয়াটসঅ্যাপ-ইনস্টাগ্রাম জড়িয়ে ফেলার কারণে কংগ্রেস নেতা উদিত রাজ এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোল হচ্ছেন।

[ad_2]