Press "Enter" to skip to content

চার হেভিওয়েটকে বন্দি অবস্থাতেই রাখতে চায় CBI, মাঝরাতে নারদা মামলায় নয়া মোড়


নারদ মামলায় (narada case) সোমবার শুনানির আগেই সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হল কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা ()। রবিবার মাঝে রাতেই বৃহত্তর বেঞ্চ গঠনের নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করল এবং অনলাইনে মামলা দায়ের করল সিবিআই। আবারও এক নাটকীয় মোড়ের সম্মুখীন নারদ মামলা।

গত সোমবার নারদ মামলায় বাংলা () ৪ হেভিওয়েটকে গ্রেফতার করতেই তোলপাড় শুরু হয় গোটা রাজ্য জুড়ে। এমনকি নিজাম প্যালেসে হাজির হন খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা ার্জী। সেখানে প্রথমে তাঁদের জামিন মঞ্জুর হলেও, পরবর্তীতে হাই কোর্টের নির্দেশে তাঁদের জামিন স্থগিত হয়ে যায় এবং চারজনকে জেল হেফাজতে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়। এরপর মামলার রায়ে ভারপ্রাপ্ত বিচারপতি অরিজিৎ বন্দ্য়োপাধ্যায় জামিনের পক্ষে থাকলেও, ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি রাজেশ বিন্দল জামিনের বিপক্ষে থাকায় ধৃতরা ছাড়া পেলেও গৃহবন্দি থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়।

এই মামলার পরবর্তী শুনানি হওয়ার কথা ছিল সোমবার অর্থাৎ আজ সকাল ১১ টায়। ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি রাজেশ বিন্দল, বিচারপতি ইন্দ্রপ্রসন্ন মুখোপাধ্যায়, বিচারপতি হরিশ টন্ডন, বিচারপতি সৌমেন সেন এবং বিচারপতি অরিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়- এই পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চে মামলার শুনানি হওয়ার কথা ছিল। কিন্তুই তাঁর আগেই রবিবার মাঝরাতে নাটকীয় মোড় দেখা যায় এই মামলায়।

সোমবার এই মামলার শুনানির আগেই রবিবার মাঝরাতে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয় কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা। বৃহত্তর বেঞ্চ গঠনের নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করে সিবিআই। শুধু তাই নয়, অনলাইনে মামলা করে বৃহত্তর বেঞ্চের শুনানি স্থগিত রাখার আবেদন জানায় সিবিআই।