Press "Enter" to skip to content

চিনকে প্রতিহত করতে চক্রব্যূহ গড়ল তিন দেশ, ঘাম ছুটল বেজিংয়ের


বাংলা হান্ট ডেস্কঃ আমেরিকা, আর অস্ট্রেলিয়ার ত্রিপাক্ষিক প্রতিরক্ষা জোট Aukus-র কারণে ঘুম উড়েছে চিনের ()। বেজিং এটিকে দায়িত্বহীন পদক্ষেপ আখ্যা দিয়ে বলেছে যে, Aukus-র কারণে খালি উত্তেজনা বাড়বে। প্রসঙ্গত, এই জোট অনুযায়ী আমেরিকা বানাতে অস্ট্রেলিয়ার সাহায্য করবে। এই পদক্ষেপ দক্ষিণ চিন সাগরে () চিনের দাদাগিরি কম করার জন্য নেওয়ায় হয়েছে।

মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী, জো বাইডেন (Joe Biden) বুধবার আমেরিকা-ব্রিটেন-অস্ট্রেলিয়ার এই নতুন জোটের ঘোষণা করেছেন। আর তখন থেকেই চিন রেগে লাল হচ্ছে। চিনের মতে এই তিন দেশের পদক্ষেপ দায়িত্বজ্ঞানহীন আর কোল্ড ওয়ারের মানসিকতার নিদর্শন।

অন্যদিকে, অস্ট্রেলিয়ার স্কট মরিসন (Scott Morrison) চিনের আপত্তি খারিজ করে শুক্রবার বলেছেন, যেভাবে চিন নিজেদের প্রতিরক্ষা বিষয়ক ইস্যুতে সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য স্বাধীন, তেমন ভাবেই অন্য দেশগুলি নিজেদের স্বার্থে নির্ণয় নেওয়া জন্য স্বাধীন। মরিসন বলেন, ভারত-প্রশান্ত মহাসাগর অঞ্চলে পরিস্থিতি খুব দ্রুত বদলাচ্ছে। আর সেই কথাই মাথায় রেখে Aukus-রগঠন হয়েছে।

মরিসন বলেন, চিনের পরমাণু সাবমেরিন ক্ষমতা আর সেনার বর্ধিত সংখ্যা এবং বিনিয়োগ নিয়ে ওয়াকিবহাল। উনি পরোক্ষ ভাবে চিনকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ‘আমরা এটা সুনিশ্চিত করতে চাই যে, আন্তর্জাতিক জল আর আকাশ সেখানেই থাকুক, যেখানে আগে ছিল। আইন আর শাসন এই সব স্থানেই সমান ভাবে লাগু হবে।” বলে দিই, বিস্তারবাদী নীতির ফলে চিন অন্য দেশের সীমান্তে প্রবেশ করে সেগুলিকে নিজের এলাকা বলে দাবি করা শুরু করেছে। চিনের এই দাদাগিরি রুখতেই চিনের আমেরিকা, ব্রিটেন এবং অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে ত্রিপাক্ষিক জোট হয়েছে।