Press "Enter" to skip to content

চীনের ঘুম কাড়তে কড়া অ্যাকশন ভারতের, এবার টক্কর হবে মুখোমুখি

নয়া দিল্লিঃ ২০১৬ সালে ভারতীয় সেনা (Indian Army) আমেরিকার (United State) থেকে ১৪৫টি হাউইটজার কামান (M777 howitzer) কেনার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। এই চুক্তি প্রায় ৭৫ কোটি ডলারে (৫৫০০ কোটি টাকা) হয়েছিল। এখনও পর্যন্ত ভারতীয় সেনা সেই চুক্তি অনুযায়ী ৮৯টি হাউইটজার কামান পেয়ে গিয়েছে। ২০২২-এর জুন মাসের মধ্যে বাকি ৫৬টি কামানও পৌঁছে যাবে ভারতে। বিগত দেড় বছর ধরে চীনের সঙ্গে চলা বিবাদের কারণে সেনা এই কামানের বেশীরভাগই সেখানেই মোতায়েন করেছে।

হাউইটজার বিশ্বের একটি অত্যাধুনিক কামান। এই কামানের মাধ্যমে 155MM/39 ক্যালিবার গোলা ফায়ার করা হয়। এই গোলা ৩০ কিমি রেঞ্জ পর্যন্ত যেকোনোও লক্ষ্যবস্তুকে ধ্বংস করতে সক্ষম। এছাড়াও কিছু এলাকায় এই কামান ৪০ কিমি পর্যন্ত ধ্বংসলীলা চালাতে সক্ষম। এই লাইট ওয়েট কামান এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় সহজেই নিয়ে যাওয়া যায়। আর এই কামানের কারণে সেনার শক্তি অনেকখানি ি পায়।

টাইটেনিয়াম আর অ্যালুমিনিয়াম দিয়ে তৈরি হওয়ার কারণে এই কামান অন্য সব কামানের থেকে অনেক কম ওজনের হয়। এর মোট ওজন ৪ হাজার ২১৮ কেজি। এই জামানি সহজেই বায়ুসেনার সিএএইচ-৭৪ এফ চিনুক হেলিকপ্টারের মাধ্যমে যেকোনোও জায়গায় নিয়ে যাওয়া সম্ভব। দুর্গম পাহাড়ি এলাকায় এই কামান খুব সহজেই আর কম সময়ে মোতায়েন করা সম্ভব।

রিপোর্ট অনুযায়ী, চীন LAC-তে ১০০-র বেশি পিএসএল-১৮১ হাউইটজার কামান মোতায়েন করে রেখেছে। আর চীনকে মোক্ষম জবাব দিতেই ভারতীয় সেনা সীমান্তে লাইটওয়েট হাউইটজার M777 কামান মোতায়েন করেছে। তবে, ভারতীয় সেনাও যে চীনকে জবাব দিতে প্রস্তুত, তা তাঁদের প্রস্তুতি দেখেই বোঝা যাচ্ছে। ভারতের এই পদক্ষেপ যে চীনের ঘুম ওড়ানোর জন্য যথেষ্ট, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।