Press "Enter" to skip to content

চীনের বিরুদ্ধে মোদী সরকারের বড় জয়, ভারতের সাথে গোপন তথ্য ভাগ করার জন্য প্রস্তুত হল জাপান


নয়া দিল্লীঃ আরও একটি বড় সফলতা অর্জন করল মোদী সরকার (Modi Sarkar)। জাপান (Japan) এবার চীনের বিরুদ্ধে ীয় সেনার সাথে গোপন চুক্তির জন্য প্রস্তুত হয়ে গেছে। জাপান ভারতের সাথে ডিফেন্স ইন্টেলিজেন্স (Defence Intelligence) শেয়ার করার জন্য নিজেদের আইনে বদল আনছে। এই বদলের সাথে সাথে জাপান আমেরিকা ছাড়া ভারত, অস্ট্রেলিয়া আর ব্রিটেনের সাথে নিজেদের ডিফেন্স ইন্টেলিজেন্স শেয়ার করবে।

জাপানের গোপন আইনে এই বদল গতমাসে করা হয়েছে। এর আগে জাপান শুধুমাত্র নিজেদের নিকটতম সহযোগী সাথে ডিফেন্স ইন্টেলিজেন্স ভাগ করে নিত। কিন্তু এবার সে তালিকায় ভারত, অস্ট্রেলিয়া আর ব্রিটেনের নামও যুক্ত হল। বিবাদের মধ্যে ২০১৪ সালে লাগু করা এই আইন অনুযায়ী, জাপানের জাতীয় সুরক্ষার বিপদ সৃষ্টি করা ফাঁস করলে জরিমানার সাথে সাথে ১০ বছরের সাজারও নিয়ম আছে। এই আইনে প্রতিরক্ষা, কূটনৈতিক আর কাউন্টার টেররিসম অন্তর্গত।

বিদেশী সেনা থেকে পাওয়া তথ্য স্টেট সিক্রেট হিসেবে শ্রেণিবদ্ধ করার ফলে সংযুক্ত অভ্যাস আর উপকরণের উন্নয়নের জন্য এই চুক্তিতে সহয়তা করবে। এর সাথে সাথে চীনের সেনা গতিবিধির তথ্য শেয়ার করাও সহজ হয়ে যাবে। বেজিং পূর্ব চীন সাগরে জাপানের জন্য লাগাতার সমস্যা সৃষ্টি করে চলেছে, আর তাদের কাছে চীনের গতিবিধি গুলোকে নজরে রাখা কঠিন হয়ে যাচ্ছে। আর এই কারণে এই পদক্ষেপ জাপানের জন্য লাভজনক হতে চলেছে।

আরেকদিকে, আমেরিকার নৌসেনা (American Navy) দক্ষিণ চীন সাগরে (South China Sea) স্বাধীন আর উন্মুক্ত ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলকে সমর্থন করে ‘ডুয়েল ক্যারিয়ার অপারেশন” আর যুদ্ধ অভ্যাস করছে। ভারত আর চীনের মধ্যে লাদাখে মে মাস থেকে চলা সীমান্ত বিবাদের মধ্যে আমেরিকার নৌসেনার অভ্যাস বুঝিয়ে দেয় যে, তাঁরা ভারতের পক্ষেই আছে।

রোনাল্ড রিগন ক্যারিয়ার স্ট্রাইক গ্রুপের জন্য ‘ অ্যাক্রিডেশন ইন পব্লিক রিলেশন অ্যান্ড মিলিটিরি পব্লিক অ্যাফায়ার্স” আধিকারিক লেফটেনেন্ট কম্যান্ডার শন ব্রোফী বলেন, ইউএসএস নিমিৎজ আর ইউএসএস রোনাল্ড রিগন দক্ষিণ চীন সাগরে স্বাধীন আর উন্মুক্ত ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলকে সমর্থন করে ‘ডুয়েল ক্যারিয়ার অপারেশন” আর যুদ্ধ অভ্যাস করছে।