Press "Enter" to skip to content

চীন যে বিষয়ে ভয় করছিল সেটাই করে দিলেন মোদীজি!! শেষ পর্যন্ত ইন্দোনেশিয়া যাত্রায় বড়ো জয় পেলো ভারত।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী পূর্বএশিয়ার দেশগুলিতে ৫ দিনের সফরে গিয়েছেন। এই দেশগুলির মধ্যে , মালেশিয়া ও সিঙ্গাপুরও সামিল রয়েছে। “এক্ট ইস্ট” এই নীতির উপর ভিত্তি করে পূর্বএশিয়ার দেশগুলির সাথে ভালো সম্পর্ককেউ আরো শক্তিশালী করে তুলতে চাইছে। কিন্তু মোদীজির এই যাত্রাকে ঘিরে চীন খুবই চাপে রয়েছে যা প্রকাশ করেছে চীনের মাধ্যমগুলি।

তবে এটা প্রথমবার নয় এর আগেও এই উপমহাদ্বীপে ভারত পা রাখলে চীনের মধ্যে হাহাকার শুরু হয়ে যেতে দেখা গেছে। আপনারা জানলে হবেন প্রধানমন্ত্রী ইন্দোনেশিয়া যাত্রায় যে কারণে গিয়েছিলেন তা সফল হয়েছে। ইন্দোনেশিয়া ভারতকে সামরিক দিক থেকে গুরুত্বপূর্ণ সাবাং দ্বীপে আর্থিক ও সামরিক এর ব্যবহারের জন্য মঞ্জুরি দিয়ে দিয়েছে। চীন প্রথম থেকেই এই বিষয়ে চিন্তিত ছিল কারণ এই দ্বীপে যুদ্ধের ক্ষেত্রে এবং ব্যাবসার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

আপনাদের জানিয়ে রাখি, সাবাংদ্বীপ সুমাত্রার উত্তরপ্রান্তে এবং মালাক্কা স্ট্রেট এর খুব কাছেই অবস্থিত। এই এলাকা থেকে ভারতের ৪০% সামুদ্রিক বাণিজ্যি ঘটবে। আরেকটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় এই যে আন্দামান নিকোবর এই দক্ষিণপূর্ব প্রান্ত থেকে এই দ্বীপের দুরুত্ব মাত্র ৭১০ কিমি।

এখন ভারতের হাতে এই দ্বীপ চলে আসার ভারত চীনের সিল্ক রুটকেউ কাউন্টার করতে সক্ষম হবে এবং চীনের উপর নজরদারি করতে পারবে। ইন্দোনেশীযার এই সিদ্ধান্তে চাপে পড়ে ক্ষোপ প্রকাশ করেছে চিন। এই দ্বীপের গুরুত্ব একটা ঘটনা থেকে আন্দাজ করা যায় যে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় জাপান জাহাজ রাখার জন্য এই দ্বীপ ব্যবহার করেছিল। তাই সাবাংদ্বীপে ভারতের উপস্থিতি ভারতের কূটনীতির জন্য কত বড়ো জয় তা আপনারা ভারতের ভেতরে বসে কল্পনাও করতে পারবেন না।

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.