Press "Enter" to skip to content

চোখ তুলে তাকাতে পারবে না শত্রুরা, অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে ডিসেম্বরেই ভারতে আসছে ‘প্রহরী”

নয়া দিল্লিঃ আগামী মাসের মাঝামাঝিতে (India) রাশিয়ার (Russia) থেকে S-400 সিস্টেম (S-400 missile system) পেতে চলেছে। এটি একটি এমন মিসাইল সিস্টেম যা ভারতের সুরক্ষা ব্যাপক মজবুত করে দেবে। ১৫ অক্টোবর ২০১৬ সালে ভারত আর রাশিয়ার মধ্যে এই মিসাইল সিস্টেম নিয়ে চুক্তি হয়েছিল। এই চুক্তি প্রায় ৪০ হাজার কোটি টাকার ছিল। এবার দীর্ঘ পাঁচ বছরের অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে আসতে চলেছে S-400 মিসাইল সিস্টেম।

S-400 মিসাইল সিস্টেম বিশ্বের সবথেকে উন্নত ও টেকসই ডিফেন্স সিস্টেমের মধ্যে অন্যতম। ২০১৭ সালে S-400 মিসাইল সিস্টেম বিশ্বের সবথেকে আধুনিক ডিফেন্স সিস্টেমের আখ্যা পেয়েছিল। এই মিসাইল সিস্টেম সহজেই এক যায়গা থেকে আরেক যায়গায় নিয়ে যাওয়া যাবে। এই মিসাইল সিস্টেম ৬০০ কিমি দূরে থাকা ৩০০ লক্ষ্যবস্তুকে চিহ্নিত করতে সক্ষম। এবং সীমান্তের সুরক্ষার জন্য সেই চিহ্নিত বিপদকে আলাদা আলাদা মিসাইল ফায়র করে ধ্বংস করতে সক্ষম এই ডিফেন্স সিস্টেম।

এই মিসাইল সিস্টেম একসঙ্গে অনেক হাওয়াই লক্ষ্যকে ভেদ করতে সক্ষম। যুদ্ধ থেকে শুরু করে ক্রুজ মিসাইল এই ডিফেন্স সিস্টেমের কাছে নস্যি। S-400 এর সামনে ইলেক্ট্রনিক জ্যামারও কাজে আসে না। ভারতীয় বিগত ৫ বছর ধরে এই মিসিয়ালের গুণগত মান এবং ক্ষমতার উপর নজর রাখছে। বর্তমানে বায়ুসেনার কাছে থাকা এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম মাত্র ৪০ কিমি পর্যন্তই কাজ করতে সক্ষম।

ভারত আগামী বছর ের থেকে মিডিয়াম রেঞ্জের জমি থেকে হাওয়াতে লক্ষ্য ভেদে সক্ষম মিসাইল কিনছে। এই মিসাইল কেনার পর ভারতীয় সেনা কোনও বিপদকে ভারতীয় সীমান্তে প্রবেশের ৮০ কিমি আগেই ধ্বংস করতে সক্ষম হবে।

রিপোর্ট অনুযায়ী, S-400 মোতায়েন হলে গোটা দেশের আকাশীয় সীমান্ত সুরক্ষিত হয়ে যাবে। এই ডিফেন্স সিস্টেমের ফলে ভারতের নিরাপত্তা অটুট হয়ে যাবে। আর এই কারণেই, আমেরিকার নিষেধাজ্ঞার পরেও ভারত কোনও কিছুর পরোয়া না করেই রাশিয়ার থেকে এই ডিফেন্স সিস্টেম কেনার চুক্তি করেছে।