Press "Enter" to skip to content

জঙ্গিদের সর্দার পাকিস্তানের সাহায্যের জন্য এগিয়ে এলোনা কোন দেশ! হতাশায় দিন কাটাচ্ছেন ইমরান খান


নয়া দিল্লীঃ বৈশ্বিক মহামারী ের মার সহ্য করছে পাকিস্তান ()। আর এই দুঃসময়ে তাদের আর্থিক সহায়তা দেওয়ার জন্য কোন বৈশ্বিক সংগঠনই এগিয়ে আসেনি। আর এই কথা জানান স্বয়ং পাকিস্তানের (Pakistan) প্রধানমন্ত্রী খান ()। উনি সোশ্যাল মিডিয়ায় (Social Media) প্রভাবশালী ব্যাক্তি আর সাংবাদিকদের সাথে কথা বলার সময় বলেন, পাকিস্তানকে এখনো পর্যন্ত এক ডলার দিয়েও কেও সাহায্য করেনি।

https://platform.twitter.com/widgets.js

নিউজ এক্সপ্রেস অনুযায়ী, ইমরান খান জানিয়েছেন যে, ‘মাহামারী কেটে যাওয়ার পর পরিস্থিতি গোটা বিশ্ব আর পাকিস্তানের জন্য বড় পরীক্ষার সময় হবে।” উনি জানিয়েছেন, ইউরোপ আর আমেরিকার দেশের থেকে পাকিস্তানের পরিস্থিতি অনেকটাই আলাদা। ইমরান খান পাকিস্তানের আর্থিক পরস্থিতির জন্য লকডাউনকে দায়ি করেন। ইমরান খান বলেন, ‘আমি লকডাউন লাগু করতে চাইছিলাম না, কারণ দেশে শ্রমিক আর দিন আনা দিন খাওয়া মানুষদের সংখ্যা অনেক বেশি। আর তাদের মধ্যে ৭৫ শতাংশ মানুষ তো সরকারি প্রকল্পে রেজিস্টারই না।”

ইমরান খান দেশের আর্থিক অবস্থা নিয়ে চিন্তা জাহির করে বলে, মহামারীর কারণে পাকিস্তানের আর্থিক অবস্থা বড়সড় ঝটকা খেয়েছে। আর অন্যান্য দেশ এবং বিশ্বের কোন সংগঠনই পাকিস্তানকে এক আনাও দেয়নি। যদিও উনি এটা স্বীকার করেন যে, আইএমএফ লোন রিপেটমেন্টে স্বস্তি দিয়েছে।

বিরোধীদের উপর আক্রমণ করে ইমরান খান বলেন, অনেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় মিথ্যে প্রচার করছে। উনি বলে, ‘যারা দুর্নীতি করে টাকা কামিয়েছে, তাঁরা মিডিয়াকে ভয় পাচ্ছে তাদের আসল তথ্য উজাগর হওয়ার জন্য।” প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেন, সরকার আইএসআই এর সাহায্যে ট্র্যাক অ্যান্ড ট্রেড সিস্টেম শুরু করবে। এর ফলে দেশে করোনার ভাইরাসের হটস্পট এলাকা গুলোকে সহজেই চিহ্নিত করা যাবে। স্বাস্থ মন্ত্রালয়ের তরফ থেকে জারি পরিসংখ্যান অনুযায়ী, করোনা আক্রন্তের সংখ্যা ১৩ হাজার পার করেছে। আর মৃতের সংখ্যা ২৮১ হয়েছে।