Press "Enter" to skip to content

জনগণের টাকায় কোরআন পড়ানো হবে না! মৌলানাকে এক উত্তরেই চুপ করিয়ে দিলেন হিমন্ত বিশ্ব শৰ্মা

আসামের শিক্ষামন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা বড়ো পদক্ষেপ নিয়েছেন তথা রাজ্যে সরকারি মাদ্রাসা বন্ধ করার সিধান্ত নিয়েছেন। তবে মাদ্রাসা বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়ে এখন নতুন বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে। নভেম্বর থেকে রাজ্যে মাদ্রাসা বন্ধ করে দেওয়া হবে এবং আধুনিক, ধর্ম নিরপেক্ষ শিক্ষার বিস্তার করা হবে। একই সাথে সরকার লাভ জিহাদের বিরুদ্ধে লড়াই করার ঘোষণাও করে দিয়েছে।

অসমে সরকারি মাদ্রাসা বন্ধ হবে এই সিদ্ধান্তকে অনেকে সেকুলারিজমের বিরুদ্ধে বলে মত প্ৰকাশ করতে শুরু করেছেন। তবে এই পরিপ্রেক্ষিতে রিপাবলিক টিভিতে এক ডিবেটের আয়োজন হয়েছিল। ডিবেটে হিমন্ত বিশ্বশর্মা ইসলামিক স্কলার আতি উর রহমানকে অতি সুন্দর জবাব দিয়ে তথাকথিত সেকুলারিজমের পর্দাফাঁস করেন।

আসলে আতি উর রহমান অতিরিক্তি সেকুলারিজম দেখিয়ে বলতে চেয়েছিলেন, ধৰ্ম নিরপেক্ষতার জন্য মুসলিমরা অনেক বলিদান দিয়েছে। আতি উর রহমান ডিবেটে বলেন, সংখ্যালঘুরা ধর্মনিরপেক্ষতার জন্য অনেক স্যাক্রিফাইস করেছে। এই স্যাক্রিফাইসের জন্য সর্দার বল্লব ভাই প্যাটেল সংবিধানে ধার্মিক অধিকার অক্ষুন্ন রাখার কথা বলেছিলেন।

https://platform.twitter.com/widgets.js

উত্তরে হিমন্ত বিশ্ব শর্মা বলেন, মৌলানা সাহেব আমাকে সর্দার প্যাটেলের একটা বক্তব্য দেখিয়ে দিন যেখানে উনি রাজ্যকে মাদ্রাসা চালাতে বলেছেন। শর্মা ডিবেটে আরো জানান, রাজ্যে মাদ্রাসা চালানোর জন্য বছরে ২৬০ কোটি টাকা হয়। সার্বজনীন সম্পত্তিকে কোরআন পোড়ানোর জন্য বা এর প্রচার করার জন্য ব্যাবহার করা ঠিক নয়।