Press "Enter" to skip to content

জাতীয় সংগীত চলাকালীন ফোনে কথা বলতে ব্যস্ত তৃণমূলের মন্ত্রী, যদিও পরে সাফাই দেন তিনি


কলকাতাঃ চলছে (), আর সেই সময় রাজ্যের মন্ত্রী ফোনে কথা বলে চলেছেন। এই ঘটনার পরিপেক্ষিতে জোর বিতর্ক ছড়াল রাজ্যের রাজনৈতিক মহলে। এদিন হাওড়া ময়দানের শরৎ সদনে রাজ্য সরকারের তরফ থেকে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করে হয়েছিল। সেখানে প্রধান অতিথি ছিলেন সমবায় দপ্তরের ভারপ্রাপ্ত মন্ত্রী ()। অনুষ্ঠান শেষ হতেই বেজে ওঠে জাতীয় সংগীত। আর জাতীয় সংগীত চলাকালীন অরুপ রায়ের ফোনে হঠাৎই চলে আসে ফোন। আর জাতীয় সংগীতের মধ্যে তিনি ফোন রিসিভ করা কথা বলা শুরু করে দেন।

সেই সময় মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন হাওড়ার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক, হাওড়া পৌরনিগমের কমিশনার সহ অন্যান্য বিশিষ্ট ব্যাক্তিরা। অনুষ্ঠান শেষ হতেই মঞ্চে জাতীয় সংগীত গাওয়া হয়। জাতীয় সংগীত বেজে ওঠার পরেই মঞ্চে এবং অনুষ্ঠান হলে উপস্থিত মানুষেরা জাতীয় সংগীত গাওয়া শুরু করেন। আর তখনই মন্ত্রী অরুপ রায়ের মোবাইলে একটি কল আসে। জাতীয় সংগীত চলাকালীনই তিনি পকেট থেকে ফোন বের করে কথা বলা শুরু করে দেন।

এই বিষয়ে অরুপ রায়কে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান, ‘আমি কল রিসিভ করে ফোনের বিপরীতে থাকা ব্যাক্তিটিকে তখনই ফোন রেখে দেওয়ার আবেদন করি। এরপর তিনিও আর ফোনে কথা বলেননি আমার সাথে।”

যদিও বিষয়টা ঠিক ভাবে নেয়নি বিজেপি। হাওড়া বিজেপির তরফ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে যে, যখন এত জরুরী ফোন ছিলই না, তখন জাতীয় সংগীত চলাকালীন কল রিসিভ করার কি দরকার ছিল? বিজেপির তরফ থেকে রাজ্যের মন্ত্রীর বিরুদ্ধে জাতীয় সংগীত অবমাননা করার অভিযোগ তোলা হয়েছে।